কৃষক শ্রমিকদের জন্য খাবার নিয়ে ধানক্ষেতে ইউএনও-রাব্বি

0 35

সাজেদুল ইসলাম ওলি,নলডাঙ্গা(নাটোর) প্রতিনিধি: ধান ঘরে উঠানোর জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে নলডাঙ্গার উপজেলা প্রশাসন। স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিয়ে তাদের মাঠে পাঠানো হয়েছে। তবে শুধু স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিয়েই থেমে নেই নাটোরের নলডাঙ্গার ইউএনও মোঃ সাকিব আল রাব্বি।

উপজেলা প্রশাসন তহবিল থেকে ধানের জমিতে গিয়ে প্রত্যেক কৃষককে দেয়া হচ্ছে চাল,ডাল,আলু, খাবার স্যালাইন, লেবু, মুড়ি, পানির বোতল, সাবান, বিস্কুটসহ শুকনো খাবার। রবিবার দুপুরে উপজেলার পিপরুল ইউনিয়ন,খাজুরা ইউনিয়ন ও মাধনগর বিল হালতি, খোলাবাড়িয়া মাঠে গিয়ে ৫৫০ কৃষক শ্রমিকদের মাঝে ওই খাবার বিতরণ ইউএনও মো.সাকিব আল রাব্বি। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ আমিরুল ইসলাম, উপজেলার প্রাণী সম্পদ ডা রফিকুল ইসলাম, ইউএনও অফিস সুপার মোঃ আসাদ আলী মোল্লা, উপজেলার পরিষদ পিএ, মোঃ নুরুল ইসলাম ছোটন।

শুধু তাই নয়। কৃষকদের বাসস্থানের সু-ব্যবস্থার জন্য কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন। খোলাবাড়িয়া হালতি বিলে ধান কাটা শ্রমিকদের জন্য করা হয়েছে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম। যাদের কাজ কৃষকদের সার্বিক সমস্যা সমাধান করা। রাখা হয়েছে তিন জন উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা। ধান কাটা শ্রমিকদের বিভিন্ন পরামর্শ দেয়ার জন্য মাঠেই প্রস্তুত রয়েছেন তারা। কৃষকদের বাসস্থানের কোনো সমস্যা হলে সেখানে থাকতে পারবে। এর আগে কৃষকদের নির্বিঘ্নে ধান কাটার জন্যে কৃষকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রত্যয়ন দিয়ে ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা করে একটি গামছা, মাস্ক, হ্যান্ড সানিটাইজার, ও সাবান প্রতিটি কৃষকের হাতে তুলে দিয়ে মাঠে পাঠিয়েছেন ইউএনও মো.সাকিব আল রাব্বি। কৃষি কাজ করার সময় করণীয় সম্পর্কিত বিলবোর্ড ধানক্ষেতের বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করা হয়েছে। কৃষকদের সচেতন করতেই এ সব আয়োজন উপজেলা প্রশাসনের।

নলডাঙ্গায উপজেলার কৃষক শ্রমিক মোঃ আশরাফুল ইসলাম ও শাহজাহান মোল্লা, শফিকুল ইসলাম সহপ্রায় ১৫ জন বলেন, এ বছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধান কাটার জন্য পর্যাপ্ত শ্রমিক ও রয়েছে। ছিলো না শুধু বাসস্থান এবং নিরাপত্তার ব্যবস্থা। তবে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদের সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছে। বাসস্থান থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী, খাবার সামগ্রী প্রদান করে আমাদের আরো কাজে উৎসাহিত করেছে। এখন আমরা নির্বিঘ্নে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারবো। ইউএনও মো.সাকিব আল রাব্বি বলেন, প্রতিটি কৃষককে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর মনোনীত করা হয়েছে।

তাদের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ও খাবার সামগ্রীসহ সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেই তাদের মাঠে পাঠানো হয়েছে। প্রতিটি কৃষক যেন নির্বিঘ্নে কাজ করতে পারে তার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে বাসস্থান ও মেডিক্যাল টিম। তারপরও রাখা হয়েছে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের। প্রস্তুত রাখা হয়েছে কমিউনিটি ক্লিনিক। যে কোনো মুহূর্তে যে কোনো সময় কৃষকরা সেখান থেকে তাদের ওষুধ সংগ্রহ করতে পারবে এবং নিজেদের সমস্যা ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে সমাধান করতে পারবে।

নাটোরের ডিসি মো. শাহরিয়াজ বলেন, কৃষকদের যে কোনো সমস্যা সমাধানের জন্য প্রস্তুত রয়েছে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন। তবে নলডাঙ্গার ইউএনও মোঃ সাকিব আল রাব্বি এই উদ্যোগের ফলে কৃষক শ্রমিকরা উৎসাহিত হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.