ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নির্বাচনের ফল পাল্টানোর মামলা স্থগিত

0 ৫৩
ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফাইল ছবি

২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের নির্বাচনের ফল পাল্টানোর ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ আনা হয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে৷ গতকাল বুধবার (৫ জুন) এই মামলা স্থগিত করার রায় দিয়েছেন জর্জিয়ার আপিল আদালত৷

জর্জিয়ার ফুল্টন কাউন্টির ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি ফানি উইলিস ট্রাম্প ও তার কয়েকজন সহযোগীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছিলেন এবং মামলায় কাজ করার জন্য নেথান ওয়েডকে স্পেশাল প্রসিকিউটর নিয়োগ দিয়েছিলেন৷ কিন্তু গত মার্চ মাসে ট্রাম্পের আইনজীবীরা অভিযোগ করেন, ওয়েডের সঙ্গে উইলিসের ভালোবাসার সম্পর্ক রয়েছে৷ সে কারণে এই মামলা থেকে উইলিসকে সরিয়ে দেওয়ার আবেদন করেছিলেন তারা৷

তবে, ফুল্টন কাউন্টির সুপিরিয়র কোর্ট জাজ স্কট ম্যাকাফি রায় দিয়ে বলেছিলেন, উইলিস মামলা চালিয়ে যেতে পারবেন৷ অবশ্য ম্যাকাফি এও বলেন, চাইলে ট্রাম্পের আইনজীবীরা তার দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে জর্জিয়ার আপিল আদালতে যেতে পারেন৷ এই আপিল আদালতই বুধবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা ফৌজদারি মামলার কার্যক্রম স্থগিতের আদেশ দেন৷ কারণ, এই সময়ে আপিল আদালত ম্যাকাফির দেওয়া রায় রিভিউ করতে চেয়েছেন৷

আপিল আদালত যুক্তিতর্ক শোনার জন্য ৪ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন৷ এরপর রায় দেওয়ার জন্য আদালত আগামী বছরের মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত সময় পাবেন৷ তার আগে নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনু্ষ্ঠিত হবে৷ অর্থাৎ, নির্বাচনের আগে এই মামলার রায় হচ্ছে না৷

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা চারটি ফৌজদারি মামলার একটি ছিল এটি৷ এর আগে ৩০ মে নিউ ইয়র্কের এক আদালত অ্যামেরিকার প্রথম সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পকে ফৌজদারি আরেক মামলায় দোষী সাব্যস্ত করেন৷ ১১ জুলাই সাজা ঘোষণা করা হবে৷ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা ৩৪টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয় তাকে৷ ব্যবসার নথিপত্র গোপন করে স্টর্মি ড্যানিয়েল্স নামের অতীতের এক পর্ন তারকার মুখ বন্ধ করতে ট্রাম্প অন্যায় করেছেন বলে জুরির সব সদস্য একযোগে তাকে দোষী হিসেবে গণ্য করেন৷ ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ঠিক আগে ট্রাম্প এমন কুকীর্তি করেছিলেন বলে আদালতে অভিযোগ করা হয়েছিল৷

Leave A Reply

Your email address will not be published.