ঠোঁটে ফুটুক রূপের আগুন

0 56

নারীদের রূপসজ্জার ঠোঁটের গুরুত্ব অনেক বেশি। অনেকেরই ঠোঁট খুব ভরাট। ভরাট ঠোঁট পেতে চায় সবাই। কিন্তু যাদের ঠোঁট এতটা ভারি নয়, ফিনফিনে পাতলা, তাদের তো মন খারাপ হতেই পারে। তবে মন খারাপ না করে আপনি ঠোঁট ভরাট ও আকর্ষণীয় করতে পারেন সহজেই।

ঠোঁট আকর্ষণীয় করে তোলার সম্পের্কে সাজসজ্জা-বিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে কিছু পদ্ধতি তুলে ধরা হলো-

লিপ পাম্পার: সৌন্দর্যের অন্যতম আকর্ষণ ঠোঁট। সেই ঠোঁট ফোলা ও টানটান দেখাতে লিপগ্লস ও বাম বেছে নিতে পারেন। এগুলো এমন কিছু উপাদান দিয়ে তৈরি যা ঠোঁটকে ফোলা ও টানটান দেখাতে সহায়তা করে। টানা ৩-৪ ঘণ্টা ঠোঁটে এ ভাব বজায় থাকে।

চওড়া করে আঁকা: ঠোঁট সামান্য বড় দেখাতে ঠোঁটের চারপাশ কিছুটা বড় করে আঁকতে পারেন। ঠোঁটের চারপাশ বেইজ মেকআপ ব্যবহার করে তার ওপরে নুড গোলাপি রংয়ের লিপ পেন্সিল ব্যবহার করে ঠোঁট এঁকে নিতে পারেন, তবে খুব বেশি বাড়িয়ে আঁকা ঠিক নয়। দেখতে বাজে লাগতে পারে।

ঠোঁট আঁকা শেষ হলে লিপ পেন্সিল দিয়ে পূর্ণ করে নিন। এরপর গাঢ় শেইডের লিপস্টিক ব্যবহার করুন। মনে রাখতে হবে, লিপস্টিক ঠোঁটের কোণার দিক থেকে মাঝের অংশে ব্যবহার করতে হয়।

গাঢ় রংয়ের লিপস্টিক: ওভার লাইনিংয়ের মতোই গাঢ় রংয়ের লিপস্টিক ব্যবহার করে ঠোঁট বড় ও ভরাট দেখাতে পারে। গাঢ় রংয়ের লিপ পেন্সিল দিয়ে ঠোঁট সামান্য বাড়তি করে এঁকে তা আঙুলের সাহায্যে ছড়িয়ে দিন। খেয়াল রাখতে হবে যেন গাঢ় রং ঠোঁটের ভেতরের দিকেই থাকে। তাতে করে ঠোঁট গাঢ় ও ভরাট দেখাবে।

হাইলাইটার ব্যবহার: ঠোঁট টানটান ও ভরাট দেখাতে হাইলাইটার সহায়তা করতে পারে, তবে সঠিক উপায়ে সেটি করতে হবে।

সাধারণত ঠোঁটের মাঝামাঝি হাইলাইটার ব্যবহারে তা দেখতে ভরাট লাগে। প্রথমে ঠোঁটে লিপস্টিক ব্যবহার করে এরপর ধনুকের মতো ঠোঁটের ওপরের ও নিচের অংশে মাঝ বরাবর হাইলাইটার ব্যবহার করুন। এরপর আঙুলের সাহায্যে ছড়িয়ে দিন। সবশেষে গাঢ় রংয়ের কন্ট্যুয়ার দিয়ে ঠোঁটের সাইজ ঠিক করে নিন। দেখতে দুর্দান্ত লাগবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x