তানোরে অদ্ভুত এক শিশুর জম্ম

0 56

তানোর (রাজশাহী)প্রতিনিধি : রাজশাহীর তানোর উপজেলায় অদ্ভুত দেখতে এক শিশুর জন্ম হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) দিবাগত রাতে তানোর পৌরশহরের মহানগর ক্লিনিকে ওই শিশুটি জম্ম হয়। উপজেলার তালন্দ ইউনিয়নের আড়াদিঘী গ্রামের গৃহবধু মুনজিরিনা বেগম শিশুটির জন্ম দেন। শিশুটির বাবা রাজমিস্ত্রি আইনাল হক। শিশুটি তাদের দ্বিতীয় সন্তান। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে মহানগর ক্লিনিকে জন্ম নেয় শিশুটি। শিশুটির লিঙ্গ পুরুষ হলেও দুই চোখ, নাক ও পায়খানা দ্বার নেই। সারা শরীর জুড়ে কোথাও স্বাভাবিক চামড়া নেই। আবার দুইটি পা থাকলেও তা বিকলাঙ্গ। সোমবার (৫ নভেম্বর) দুপুরে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শিশুটি জীবিত আছে। তার শরীরের অন্যান্য অঙ্গগুলোও অস্বাভাবিক রয়েছে। শিশুর বাবা আইনাল হকের বরাত দিয়ে তালন্দ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মন্ডল জানান, জন্মের পরেই মহানগর ক্লিনিকের চিকিসৎকের অপারগতা দেখিয়ে অদ্ভুত শিশুটিকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। তবে শিশুটির মা এখনও ওই ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন আছে। তবে শিশুটিকে বাড়ি নিয়ে আসা হলে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় শতশত লোকজন শিশুটিকে দেখতে তাদের বাড়িতে ভিড় করছে বলেও জানান এই জনপ্রতিনিধি।  এদিকে, উপজেলার মহানগর ক্লিনিক এন্ড ডায়গনস্টিক সেন্টারের পরিচালক হেলাল আহম্মেদ এই প্রতিবেদককে বলেন, অদ্ভুত দেখতে ওই শিশুর জন্ম হওয়ায় আমরা তাদের পরিবারকে সরকারী মেডিকেলে নিয়ে যেতে বলেছিলাম। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তারা তা করেননি। আমাদের ক্লিনিকে তো সব ধরনের চিকিৎসা সম্ভব নয়। তাছাড়াও অস্বাভাবিক আকৃতির এই শিশু বেঁচে থাকবে, তা কেউও কল্পনাও করতে পারছেন না বলে দাবী করেন তিনি।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.