তারেক ও ফারুকীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

637

tareq-ziaবিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : তেজগাঁও থানার রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি) প্রধান প্রতিবেদক মাহাথির ফারুকীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মামলাটির চার্জশিট আমলে নিয়ে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারাফুজ্জামান আনসারী আসামিরা পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

আসামিদের গ্রেফতার করা না গেলে তাদের মালামাল ক্রোকেরও নির্দেশ দেন তিনি। আগামী ২ নভেম্বর এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য করেছেন তিনি।

মামলার অপর দুই আসামির মধ্যে ইটিভির চেয়ারম্যান আবদুস সালাম কারাগারে আটক আছেন। অপর আসামি চ্যানেলটির বিশেষ প্রতিনিধি কণক সরওয়ার এ মামলায় জামিনে আছেন।

গত ০৬ সেপ্টেম্বর মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ইমদাদুল হক ঢাকার সিএমএম আদালতে আবদুস সালাম, তারেক রহমানসহ ৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

ইটিভি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম রাষ্ট্রদ্রোহ ছাড়াও পর্নোগ্রাফি আইনের একটি ও প্রতিষ্ঠানের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের দায়ের করা দুর্নীতির একটি মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন।

গত বছরের ০৪ জানুয়ারি রাতে লন্ডন থেকে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বক্তব্য সরাসরি সম্প্রচার করে একুশে টেলিভিশন। পরদিন রাতে কারওয়ানবাজারের ইটিভির কার্যালয় থেকে বাসায় ফেরার পথে সালামকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। ‘ইটিভিতে তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচার রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল’ এ অভিযোগে ওই বছরের ৮ জানুয়ারি দণ্ডবিধির ১২৪(এ) ধারায় রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাটি করেন তেজগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বোরহান উদ্দিন।

মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও ইটিভির তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুস সালামকে আসামি করা হয়।

চার্জশিটে বলা হয়েছে, ‘২০১৫ সালের ০৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা ও কালো দিবস’ উপলক্ষে পূর্ব লন্ডনের অট্রিয়াম অডিটরিয়ামে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন তারেক রহমান। তারেক রহমান তার বক্তব্যে- দেশের বিচার বিভাগ, প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে এমন মন্তব্য করেছেন যাতে জনমনে হিংসার উদ্বেগ হয়েছে’।

এছাড়া চার্জশিটে পলাতক আসামি হিসেবে তারেক রহমানের বক্তব্য সরাসরি সম্প্রচার করে ইটিভির চেয়ারম্যান আবদুস সালামও রাষ্ট্রদ্রোহের কাজ করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

x