তেলের ঘানি টানছেন রায়গঞ্জের আবুল কালাম ও স্ত্রী আসমা বেগম

0 ১১২
মোকাদ্দেস হোসাইন সোহান, রায়গঞ্জ, সিরাজগঞ্জঃ একটা গরুর অভাবে জরাজীর্ন ছাপরা টিনের ঘরে বুকে জোঁয়াল বেধে নিজেরাই টানছেন তেলের ঘানি। বিকেল পেরিয়ে আসছে তবুও চলছে প্যারপ্যারানি ঘানির শব্দ। কাঠের বিভিন্ন সরঞ্জাম দিয়ে তৈরি পেটের তাগিদে, যন্ত্রটি স্বামী-স্ত্রী মিলে জোঁয়াল বুকে লাগিয়ে ঘানির চারদিকে নির্বিকারভাবে অনবরত ঘুরে চলছেন তারা।
আর সরিষা থেকে ফোঁটায় ফোঁটায় নিংড়ানো খাঁটি তেল জমা হচ্ছে পাতিলে। (০৮ এপ্রিল শনিবার ২০২৩) বিকেলে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের ৮ নং পাঙ্গাসী ইউনিয়নের শ্রীদাসগাতী গ্রামের হত-দরিদ্র মোঃ আবুল কালাম প্রামাণিক ও তার সহধর্মিনী আসমা বেগমের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় এমন চিত্র।
একটা গরুর অভাবে এভাবে তেলের ঘানি টেনে জীবিকা নির্বাহ করছেন মোঃ আবুল কালাম ও তার সহধর্মিনী আসমা বেগম।ভুক্তভোগী আবুল কালাম বলেন, এ কাজের সঙ্গে প্রায় ৩০ বছর সময় ধরে জড়িত। একটা গরুর অভাবে স্ত্রী আসমা বেগমকে সঙ্গে নিয়ে গরুর কাজ করে যাচ্ছেন।
তিনি আরো বলেন, সারাদিন ঘানি টেনে ১২ কেজি সরিষায় মাত্র সারে তিন কেজি থেকে পৌনে চার কেজি তেল পাওয়া যায়। সেই তেল গ্রাম-গঞ্জের হাটবাজারে বিক্রি করে যা পান তাই দিয়ে সংসার চলে তাদের। আসমা বেগম বলেন, বিয়ের পর থেকেই কাঁঠের ঘানি টানছেন তিনি। এ কাজটি করতে খুবই কস্ট হচ্ছে বলে জানান আবুল কালাম ও স্ত্রী আসমা বেগম।
প্রতিবেশি বেস কয়েকজন জানান, আমরা প্রায়ই ফেসবুকে দেখি, অসহায় ব্যক্তিদের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করা হচ্ছে। তাদের এমন মহৎ কাজগুলো দেখে সত্যিই মন ভরে যায়। আমরা প্রতিবেশী এই অসহায় দম্পতির জন্য একটা গরুর ব্যবস্হা করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।
এমতাবস্হায় দেশের বিভিন্ন সামাজিক সংঘটন, দানশীল ব্যক্তি ও বিত্তবানদের নিকট সহায়তা চেয়েছেন উপজেলার শ্রীদাসগাতী গ্রামের অসহায় দম্পতি মোঃ আবুল কালাম ও স্ত্রী আসমা বেগম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.