দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে ঈদ আনন্দ থেকে বঞ্চিত ছবেদ আলী ও তার পরিবার

3,038

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : “তিন বেলা ভাতই খাইতে পারি না আর আমাগো ঈদ। পরের জমিতে কাজ করে যে কয়টা টাকা পাই তা দিয়ে ছেলেদের ওষুদ কিনতেই শেষে ঈদ করব কিভাবে। এবারে ঈদে কাউরেই নতুন কাপড় কিনা দিয়ে পারিনাই।” চোখের জল ফেলতে ফেলতে এভাবে কথাগুলো বলছিলেন গোপালগঞ্জের বানিয়ারী গ্রামের বৃদ্ধ কৃষক ছবেদ আলী (৭৫)।

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউনিয়নের বানিয়ারী গ্রামের বৃদ্ধ কৃষক ছবেদ আলীর তিন ছেলেই পঙ্গু। যার কারনে দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে ঈদ আনন্দ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এই পরিবারটি।

বানিয়ারী গ্রামের বৃদ্ধ কৃষক ছবেদ আলী জানান, সমাজের আর দশটি শিশুর মতো এরাও এক সময় ছিল সুস্থ্য সবল। অন্যান্য শিশুর মতো প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখা পড়া করেছে। প্রতিটি পঙ্গু ছেলে ১০-১২ বছর পর্যন্ত স্বাভাবিক ভাবে চলাফেরা ও খেলাধুলা করলেও হঠাৎ করে কোন এক অজানা রোগে তিন ছেলের হাত ও পা শুকিয়ে যেতে থাকে। প্রথমে এলাকার চিকিৎসকের কাছে তাদের চিকিৎসা করালেও কোন ফল না পেয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়েও কোন ফল হয়নি।তার ধারনা উন্নত চিকিৎসা করাতে পারলে ছেলে ইস্রাফিল (২৬), ইজাবুল (২৪) ও এনামুল (২২) সুস্থ্য হয়ে উঠত। পঙ্গু তিন ছেলের চিকিৎসার খরচ যোগাতে জমি জমা যা ছিল বিক্রি করে এখন নিঃস্ব। তার পরেও ছবেদ আলী ছেলেদের চিকিৎসা করাতে চায়।

আছমা খানম নামে ছবেদ আলীর বিবাহযোগ্য একটি মেয়ে রয়েছে। মেয়েটি সুস্থ-স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপন করছে। তিনটি ছেলে পঙ্গু থাকার কারণে মেয়েটির বিয়ে হচ্ছে না। ডা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন। কৃষি ব্যাংকে তিনি প্রায় ৬০ হাজার টাকা ঋন রয়েছে। ঋনের বোঝা মাথায় নিয়ে পরকাল যেতে চান না। কিন্তু তার আয়ের কোন উৎস নেই । যেটুকু ভিটা আছে তা ব্যাংক নিয়ে নিয়ে পথে বসতে হবে।

এদিকে, অসহায় এ পরিবারটির দিতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে অনলাইন ভিক্তিক স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন সোনালী ভবিষ্যত। ছবেদ আলীর বাড়িতে গিয়ে স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন সোনালী ভবিষ্যত’র সভাপতি কামরুল ইসলাম দিপু পরিবারটির হাতে নগদ ১৫ হাজার ৫শত টাকা, শাড়ী ও লুঙ্গি তুলে দেন। এ সময় স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন সোনালী ভবিষ্যত’র সদস্য প্রভাষক মিন্টু রায়, শিক্ষিকা জান্নাত সুলতানাসহ দাতা সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে দেশের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন কৃষক ছবেদ আলী। বৃত্তবানদের সামান্য সাহায্য পেলে চিকিৎসা করাতে পারবেন তিনি। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানাঃ ছবেদ আলী হাওলাদার-হিসাব নং- ৩৪১৮২২৪৪ সোনালী ব্যাংক, কোটালীপাড়া শাখা,গোপালগঞ্জ। বিকাশ নং- ০১৭৪৭৭৭৪৭৩৪।

x