ধামইরহাটে স্ত্রীর পরকীয়া ঠেকাতে তালাক প্রদান, স্ত্রীর কর্তৃক স্বামীর বাড়ী ভাংচুর-লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

0 85

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর ধামইরহাটে স্ত্রীর পরকীয়া ঠেকাতে ব্যর্থ স্বামী নিরুপায় হয়ে আদালতের মাধ্যমে স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন। এই খবর পেয়ে স্ত্রী তার লোকজন নিয়ে ভুক্তভোগী স্বামীর বাড়ী ভাংচুর করে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার আগ্রাদ্বিগুন ইউনিয়ন বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

ধামইরহাট থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উত্তর কাশিপুর গ্রামের মৃত হবিবর রহমানের ছেলে মো. ইউনুছ আলী (৪৮) একই ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের আ. সামাদের মেয়ে সুফিয়া বেগমকে ১০ বছর পূর্বে বিয়ে করে, সংসার জীবনে ২ কন্যা সন্তানের জনক-জননী হন তারা। কিন্তু স্বামীর অগোচরে পরকীয়ায় লিপ্ত হন স্ত্রী সুফিয়া বেগম। এ বিষয়ে একাধিকবার গ্রাম্য সালিশে সন্তানদের কথা ভেবে স্বামী ইউনুছ আলী ওই স্ত্রীকে গ্রহণ করেন।

 

কিন্তু একাধিকবারে একই ভাবে পরকীয়ায় লিপ্ত হওয়ায় উপায় না পেয়ে চলতি বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারী স্ত্রী সুফিয়া বেগমকে আদালতের মাধ্যমে তালাক প্রদান করে। এই খবর পেয়ে ১৯ ফেব্রুয়ারী সকালে বাড়ীতে সাবেক স্ত্রী সুফিয়া বেগম হামলা চালিয়ে নগদ টাকা ও বাড়ী ঘরের ক্ষতি করে। বদমেজাজি ওই স্ত্রী পরবর্তীতে ২৩ ফেব্রুয়ারী রাত ১১ টায় পুনরায় হামলা চালিয়ে নির্মানাধীন ঘরের প্রাচীর ভাংচুর করে নির্মানসামগ্রী তছনছ করে, এতে প্রায় বাড়ীর মালিকের লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ভুক্তভোগী ইউনুছ আলী জানান।

 

মধ্যরাতে বাড়ীতে হামলার ঘটনায় নিজেকের সম্পৃক্তের কথা বজ্রকণ্ঠে স্বীকার পূর্বক অভিযুক্ত সুফিয়া বেগম বলেন, আমি নিজ ইচ্ছায বাবার বাড়ীতে বসবাস করছি, আমি কোন তালাকের কাগজ হাতে পাইনি, আমার দুই মেয়ে সন্তানকে আমার স্বামী জমি দিয়ে তা বিক্রির পাঁয়তারা করায় আমি নিজেই বাড়ী ভাংচুর করেছি বলে প্রতিবেদককে জানান। এলাকাবাসীও গৃহবধু সুফিয়া বেগমকে দুঃচরিত্রের বলেই জানেন।

ধামইরহাট থানার ওসি আবদুল মমিন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x