ধেয়ে আসছে শতাব্দীর সবচেয়ে বিধ্বংসী টাইফুন, বিশ্ব দেখছে সরাসরি (ভিডিও)

95

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘ফ্যাক্সাই’য়ের রেশ কাটার আগে ফের প্রকৃতির ছোবলে জাপান। গত কয়েক দশকের মধ্যে সবথেকে শক্তিশালী ঝড় ‘হাগিবিস’ ধেয়ে আসছে ‘উদীয়মান সূর্যের দেশে’র দিকে। চলতি সপ্তাহে মহা শক্তিধর এই ঝড় মূল ভূখণ্ডে আছড়ে পড়তে চলেছে বলে সতর্ক করে দিয়ে জাপানের আবহাওয়া সংস্থা। চলতি মরশুমে জাপানে এটি ১৯তম টাইফুন বলে জানা গিয়েছে।

‘হাগিবিস’ জেরে ৩০ ইঞ্চি বৃষ্টির পাশাপাশি ঘণ্টায় প্রায় ২১৬ কিলোমিটার গতিতে ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়ে আবহাওয়া দফতর। ফলে টোকিয়ো মেট্রোপলিটন এলাকা-সহ মধ্য জাপানের কান্ট-কোশিন অঞ্চলে বাড়ি ভেঙে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে প্রশাসন। সেইসঙ্গে সমুদ্রে ৪১ ফুট উচ্চতার ঢেউ ওঠার আশঙ্কা।

এদিকে, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে শনিবারের রাগবি বিশ্বকাপের ম্যাচ, ট্রেন এবং বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেছে প্রশাসন। একইসঙ্গে স্থানীয় মানুষদের বাইরে না বের হতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে বিদেশি নাগরিকদের বিশেষ সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়েছে সরকার।

সেখানকার স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে জাপানের দিকে ধেয়ে আসতে শুরু করেছে। শনিবার সন্ধ্যায় সেটি আছড়ে পড়বে। রবিবার দুপুরে সেটি উত্তর জাপানের হোক্কাইডোর পূর্বাংশের উপর দিয়ে যাবে বলে জাপানের আবহাওয়া সংস্থা শুক্রবার জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৮ সালে ঘূর্ণিঝড়ে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল জাপান। সেবার দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ১২০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। নিখোঁজ হন আরও অনেকে। কিন্তু টাইফুন হাগিবিস এর তীব্রতাকে ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

একারণে শনিবার সকালের পর থেকে বুলেট-সহ সমস্ত ট্রেন পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। একইভাবে শনিবার থেকে হ্যানেডা এবং নারিতা বিমানবন্দর থেকে সমস্ত ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক উড়ান বাতিল করেছে অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ। জাপান এয়ারলাইন্সও শনিবার পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে।

x