নওগাঁয় মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের অভিযোগ

0 ১৫১

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁ সদর উপজেলার চোয়ারপুর ঘোষপাড়া এলাকায় শ্রী শ্রী কালী মন্দিরের কালী প্রতিমা ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। গত রোববার দিবাগত রাতের কোনো এক সময় এই ঘটনা ঘটে।
এলাকাবাসী ও মন্দির কমিটির নেতারা বলেন, সদর উপজেলার কীর্ত্তিপুর ইউনিয়নের চোয়ারপুর মোড়ে চেয়ারপুর শ্রী শ্রী কালীমন্দিরে রোববার রাতের আঁধারে কে বা কারা মন্দিরের বাঁশের বেড়ার দরজা সরিয়ে ভেতরে প্রবেশ করে কালী প্রতিমা ভাঙচুর করে। দুর্বৃত্তরা কালী প্রতিমার গলার অংশ থেকে মাথা কেটে নিয়ে চলে গেছে। সোমবার সকালে স্থানীয় এক নারী মন্দিরে পূজা দিতে এসে প্রতিমা ভাঙচুর দেখতে পেয়ে মন্দির কমিটির লোকজনকে জানান। পরে মন্দিরে এসে সবাই এ ঘটনা দেখতে পান। তবে কারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তা শনাক্ত করতে পারেনি কেউ।
চোয়ারপুর কালী মন্দির কমিটির সভাপতি ভবেশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, ‘কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, আমরা তা জানি না। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে আমরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার জানার পরপরই সোমবার সকালে বিষয়টি আমরা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও থানা পুলিশকে জানিয়েছি। ঘটনা জানার পর ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে গতকাল সোমবার সারা দিন এ ব্যাপারে পুলিশকে কোনো উদ্যোগ নিতে দেখা যায়নি। পুলিশের কেউ মন্দির পরিদর্শনেও আসেনি। তবে আজকে ঘটনাটি স্থানীয় কিছু সাংবাদিক জানার পর প্রশাসন ও পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ফোন দিলে আজ পুলিশের কয়েকজন সদস্য এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।’
কীর্তিপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের এলাকায় হিন্দু-মুসলিম ভাই ও বোনেরা সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে বসবাস করে আসছে। সেই সম্প্রীতিকে নষ্ট করার অপপ্রয়াসের অংশ হিসেবে প্রতিমা ভাঙচুর করে থাকতে পারে কোনো চক্র। ঘটনা জানার পরপরই আমি থানা পুলিশকে অবহিত করেছি। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া উচিত।
নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল হক বলেন, আজকে ঘটনাটি জানার পর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করতে সেখানে দুইজন পুলিশ সদস্যকে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.