নওগাঁর বদলগাছীতে কাবিখার কর্মসুচির কাজে স্বস্তিফিরেছে  জনসাধারণের

0 ৩৪৪
নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর বদলগাছী উপজেলায় কাজের বিনিময়ে খাদ্য (কাবিখা) কর্মসূচির অধীনে গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কারের কাজ গুলোতে স্বস্তিফিরেছে   জনসাধারণের  বিভিন্ন  প্রকল্পে বরাদ্দের  প্রায় ২০ মেট্রিক টন চালে প্রকল্পের সভাপতি ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইওর) সমন্বয়ে  দ্রুত গতিতে কোন অনিয়ম ও দুর্নীতি ছাড়ায় সুন্দর ভাবে প্রকল্পের কাজ করে স্বস্তিফিরিয়ে  এনেছে বদলগাছী উপজেলার সাধারণ জনগণের।
বদলগাছী উপজেলার পিআইও অফিস সূত্র পাওয়া তথ্য মতে, ২০২২-২৩ অর্থবছরে গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কারের আওতায় বদলগাছী উপজেলার নির্বাচনী এলাকাভিত্তিক দ্বিতীয় কিস্তির সাতটি প্রকল্প অনুমোদিত হয়। এর মধ্যে ১ নম্বর প্রকল্প বদলগাছী সদর ইউনিয়নের ছেলেকালী শ্মশান ঘাটে মাটি ভরাটের জন্য ১৫ মেট্রিক টন ও ৬ নম্বর প্রকল্প আধাইপুর ইউনিয়নের বৈকণ্ঠপুর মোকলেছ মুহুরীর বাড়ি থেকে বৈকণ্ঠপুর পাকা রাস্তা পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের জন্য ৮ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়।
সরেজমিনে গিয়ে এলাকা ঘুরে দেখা যায় কোন অনিয়ম-দুর্নীতি ছাড়ায় সুন্দর মনোরম পরিবেশে কাজ গুলো করা হয়েছে। এদিকে আধাইপুর ইউনিয়নের বৈকণ্ঠপুর মোখলেছ মুহুরির বাড়ি থেকে বৈকণ্ঠপুর পাকা রাস্তা পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে।
কাবিখা ১ নম্বর প্রকল্পের সভাপতি (পিআইসি) ছেলেকালী শ্মশান ঘাটের সাধারণ সম্পাদক বিভাষ কুমার অধিকারী বলেন, কাবিখা ৬ নম্বর প্রকল্পের সভাপতি (পিআইসি) উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ভগিরত কুমার মণ্ডল বলেন, ‘বৈকণ্ঠপুরের ওই রাস্তায় আমি ৭০ হাজার টাকার মাটি কেটেছি।
আধাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম রেজাউল কবির পল্টন বলেন  আমার ইউনিয়নের কোন রাস্তার কাজের কোন অনিয়ম-দুর্নীতির হয়নি কাজ গুলো সুন্দর ভাবে হয়েছলা।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) ময়নুল ইসলাম বলেন, সরকার জনসাধারনের জন্য যে বরাদ্দের অর্থ দিয়েছে সেই অর্থ দিয়ে প্রকল্পের কাজ সুন্দর ভাবে করা হয়েচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.