নববর্ষে প্রেমিকের শাড়ি পরার মজাই আলাদা

0 82
কলকাতার টিভি অভিনেত্রী শোলাঙ্কি রায়। ছবি : ফেসবুক থেকে

আজ পহেলা বৈশাখ। বাংলা বর্ষপঞ্জিতে আজ বুধবার যুক্ত হলো নতুন বাংলা বর্ষ ১৪২৮। তবে চিরচেনা উৎসব নয়, করোনা মহামারির কারণে পহেলা বৈশাখ এবার কেবলই সংখ্যা ও দিনবদল। তবু অতীতস্মৃতি তো আছেই। তা ক্ষণে ক্ষণে উঁকি দিচ্ছে মনে। সেই মধুমাখা স্মৃতির কিয়দংশ শেয়ার করলেন কলকাতার জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী শোলাঙ্কি রায়।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

নববর্ষের বিশেষ ক্ষণে কলকাতার জনপ্রিয় দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকায় শোলাঙ্কি রায় লিখেছেন বিশেষ স্মৃতিকথা। সেখানে প্রেমপর্বে বলেছেন, ‘প্রেম করা শুরু করতেই নববর্ষে অন্য রোমাঞ্চ তৈরি হল। নতুন শাড়ি পাব। বে‌শ একটা লজ্জা ও প্রেম মেশানো ব্যাপার-স্যাপার। সেই শাড়ি পরে রেস্তোরাঁয় খেতে বেরোনো একসঙ্গে! শাড়ি পরতে আমি ভালোবাসি সব সময়। তবে প্রেমিকের থেকে পাওয়া শাড়ি পরার মজা অন্যই!’

 

সেই শাড়িগুলোর এখন আর অস্তিত্ব নেই শোলাঙ্কির বাড়িতে। কী হলো প্রেমিকের কাছ থেকে উপহার পাওয়া শাড়িগুলোর? শোলাঙ্কির খোলা জবাব, ‘দানছত্রে দিয়ে দিয়েছি।’

 

সেই পর্ব না হয় গেল। এখন কীভাবে কাটে নববর্ষের দিন? শোলাঙ্কি জানান, ‘পয়লা বৈশাখ আসলে খুব ঘরোয়া এক উৎসব ছিল ছোট থেকেই। ঘরে ঘরে পালন হতো বৈশাখ মাসের প্রথম দিনটা। সম্ভবত আজও হয়, কিন্তু আমার জীবনে এ দিনটা ভীষণ কাটখোট্টা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কর্মক্ষেত্রের সঙ্গে মিশে গিয়েছে প্রতিটা উৎসব। কোনও বড় অনুষ্ঠান হয়, সেজেগুজে যাই। শুট না থাকলেও পেশাদার পয়লা বৈশাখ কাটাই এখন। সেই রোমাঞ্চটা নেই।’

 

নববর্ষে রান্না চলবে না, তা কি হয়? শোলাঙ্কি বলেন, নববর্ষে একটু আধটু রান্না করতে ভালোই লাগে। তো নববর্ষে নবহর্ষে কাটুক অভিনেত্রীর দিন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x