পাবনায় গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগে স্বামী সুমন আটক

0 ৫৭
পাবনা প্রতিনিধি : পাবনার সাঁথিয়ায় রোখসানা খাতুন (২৬) নামে এক গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগে স্বামী সুমনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।
সে সাঁথিয়া উপজেলাধীন পার-করমজা গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে। নিহত রোকসানা পার্শ্ববর্তী শাহজাদপুর উপজেলার চয়রা গ্রামের রওশনের মেয়ে।
নিহতের পারিবারিক ও সাঁথিয়া থানা সুত্রে জানা গেছে, গত ৮ বছর আগে পার্শ্ববর্তী শাহজাদপুর উপজেলার চয়রা গ্রামের রওশনের মেয়ে রোকসানা খাতুনের বিয়ে হয় সাঁথিয়া উপজেলার পার-করমজা গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে সুমনের সাথে। তাদের ঘরে ৪ বছরের একটি মেয়ে ও দেড় বছরের এক ছেলে রয়েছে।
বিয়ের পর থেকে সুমন তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে প্রায়ই রোকসানাকে শারিরীক ও মানুষিক নির্যাতন করতো। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার রাত ১০টার দিকে ঔষধ খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়।
এক পর্যায়ে স্বামী সুমন রোকসানাকে মারপিট করলে সে মারা যায়। নিহতের গলায়, মুখে, মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
হত্যার অভিযোগে থানায় আটককৃত সুমন জানায়, ঘটনার দিন রাতে ঔষধ খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। এর পর সুমন রেগে গিয়ে রোকসানাকে মারপিট করলে সে পড়ে যায়। ওর দাত লেগে গেছিল আমি বুঝতে পারি নাই। পরে দেখি মারা গেছে।
মেয়ের বাবা রওশন আলম জানান, বিয়ের পর থেকেই আমার মেয়েকে সুমন নানাভাবে শারিরীক মানুষিক নির্যাতন করতো। টাকা পয়সা চাইতো।  সে আমার মেয়েকে হত্যা করেছে। আমি এর বিচার চাই।
সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম জানান, ওদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ ছিল। ঘটনার দিন দুজনের মধ্যে গোন্ডগোল হয়। সুমন রোকসানাকে মারপিট করলে সে পড়ে যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আঘাতে তার মৃত্য হয়েছে।
নিহতের স্বামী সুমনকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.