পুঠিয়ায় মুজিব বর্ষের গৃহহীন দের জন্য বরাদ্দকৃত এক ঘরে দুই তালা লাগিয়েছে দুই পরিবার

0 ১৬৩

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়ায় মুজিব বর্ষের গৃহহীন দের জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্পের জন্য বরাদ্দকৃত ঘরে দুই তালা লাগিয়েছে দুই পরিবার। এ নিয়ে উত্তেজনা এবং রহ্যসের সৃষ্টি হয়েছে। সেই ঘরকে কেন্দ্র করে সেখানে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পাড়ে বলে জানায় স্থানীয়রা। দেখার যেন কেউ নাই।

জানা গেছে, রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দুপুর এলাকায় মুজিব শতবর্ষে গৃহহীনদের জন্য নিমির্ত ঘরে একজন দাবীদার অপরজন রাজনৈতিক দলের লেলিয়ে দেওয়া দাবীদারের কেন্দলের সৃষ্টি হয়েছে। সেই ঘরকে কেন্দ্র করে সেখানে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পাড়ে বলে জানায় স্থানীয়রা। তাই তাদের ভয়ে স্থানীয়রা কথা বলতে ভয়পায়।

হাসিনা বেগম জানান, প্রথমে ঘরটি তেতলির নামে বরাদ্দ হয়। তারপর তেতলিকে নুকুলবাড়িয়া একটি ঘরে তুলেদেন এবং সেখানে আমার মা মালেকা (৬০) কে সেই ঘরে থাকার জন্য তুলে দেওয়া হয়। তিনি প্রায় দেড় মাস পূর্বে মৃত্যু বরণ করেন। তার জিনিসপত্র সেই ঘরেই রয়েছে। আর সেই ঘরের চাবি তার মেয়ে হাসিনা বেগমের কাছে থাকে। সোমবার রাতে নাইম নামের এক জন হাসিনার কাছে গিয়ে বলে ইউএনও স্যার চাবিটা চেয়েছে দেন। সেই চাবি নিয়ে গিয়ে জুলেখা (৬০) কে ঘরে তুলে দিয়েছে। তার ছেলের ইটের বাড়ি ও জমি জমা রয়েছে।

জুলেখা জানান, আমাকে স্থানীয় নামকরা নেতা ইউনুস আলী এবাদুল, রাজু আহম্মেদ ও শহীদ এরা আমাকে সেই ঘরে তুলে দিয়েছে।

জিউপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোছাঃ হোসনেয়ারা জানায়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেই দুই জনের মধ্যে যে পাওয়ার যোগ্য তাকে দিবে। এখানে আমার কিছু বলার নাই।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম জানান, সেই বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং জিউপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যানের। তাই তাদের সাথে একটু কথা বলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুল হই মোহাম্মদ আনাছ বলেন, আমি কাউকে থাকার নিদের্শ দিয় নাই। তবে বিষয়টি দেখবো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.