পুঠিয়া হাসপাতাল অনিয়ম ও দূর্নীতির আখড়া পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর পুঠিয়ার স্বাস্থ্য সহকারী ৮ বছর পর হাসপাতালে এসেই রেগুলার

0 305

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি: বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকমে সংবাদ প্রকাশের পর পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেলিম নামের একজন স্বাস্থ্য সহকারী ৮ বছর পর রবিবার হাসপাতালে আসেন। তার চাকুরী বাঁচাতে কিছু দূর্নীতিবাদ কর্মকর্তাদের মদদে তাকে গত ৬ মাসের রেগুলার দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাই বিষয়ে রাজশাহী জেলা সির্ভিল সার্জন সাহেবকে সরজমিনে হাসপাতালে এসে তদন্ত করে এবং দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দাবী করেন এলাকাবাসী।

 

গত শনিবার দুপুরে সাংবাদিকের সাথে সাক্ষাতকারের সময় স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইনচার্জ মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, আমি এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রায় দুই বছর থেকে কর্মরত আছি। সম্প্রতি আমি স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইনচার্জ দায়িত্ব পালন করছি। তবে স্বাস্থ্য সহকারী সেলিম অফিসে আসেন না। তার কর্মরত এলাকা বানেশ্বর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে। তিনি ঠিকমত অফিসে না আসায় আমরা তাকে বার বার মৌখিক ভাবে অবগত করি। এর প্রেক্ষিতে মে মাসে ৫ তারিখে চিঠির মাধ্যমে তাকে জানানো হয়েছে।

 

গত শনিবার দুপুরে সাংবাদিকের সাথে সাক্ষাতকারের সময় আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, আমি একমাস হলো আরএমও’র দায়িত্ব নিয়েছি। সেই বিষয়টি আমার জানা নাই। খোঁজ নিয়ে জানতে পেরিছি সেলিমের ভাই অসুস্থ্য থাকার কারণে সে কয়েকদিন অফিসে আসেনি। অথচ পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর রবিবারে রহস্য জনক ভাবে রেগুলার হয়ে গেলেন।

 

তাই বিষয়ে রাজশাহী জেলা সির্ভিল সার্জন সাহেবকে সরজমিনে হাসপাতালে এসে তদন্তকরে এবং দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দাবী করেন এলাকাবাসী।

 

একটি সূত্র জানায়, দীর্ঘ ৮ বছর পর স্বাস্থ্য সহকারী সেলিম হাসপাতালে আসলে কয়েকজন কর্মচারী তাকে জামাই আদর করার মত রিসিভ করে নিয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইনচার্জ মোঃ আব্দুস সালাম জানান, সে ফেব্র“য়ারী মাস থেকে রেগুলার আসে। এপ্রিল মাসে তার ভাই ও আতœীয় অসুস্থ্য থাকার কারণে কয়েকদিন অফিসে আসেননি।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x