প্রত্যেক উপজেলা থেকে ২ জনের নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

0 ৩৭২

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: বাংলাদেশে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রকৃত চিত্র জানতে দেশের প্রত্যেক উপজেলা থেকে অন্তত ২ জন করে সন্দেহভাজন ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) দুপুরে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশের কথা জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (এমইএস) ডা. মো হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, ‘দেশের প্রতিটি উপজেলা থেকে অন্তত দুজনের নমুনা পরীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ইতোমধ্যে নির্দেশনা অনুসারে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বিভিন্ন বিভাগীয় পরিচালকগণকে নমুনা সংগ্রহের নির্দেশনা দিয়েছেন।’

আজ বৃহস্পতিবারের মধ্যে সারা দেশ থেকে অন্তত ১০০০ নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে বলেও জানান ডা. হাবিবুর।

ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আজ আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে একটা নির্দেশনা পেয়েছি। ইতোমধ্যে আমাদের মহাপরিচালক, ঢাকাসহ প্রত্যেক বিভাগের পরিচালক, সব সিভিল সার্জনকে নির্দেশ দিয়েছেন যেন আজকের মধ্যে প্রত্যেক উপজেলা থেকে অন্তত ২টি করে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আমরা যেন অন্তত ১০০০ নমুনা সংগ্রহ করতে পারি এবং আগামীকাল সেগুলা পরীক্ষা করতে পারি।’ব্রেকিংনিউজ

এসময় তিনি সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশের করোনা পরিস্থিতি তুলে ধরে জানান, দেশে নতুন করে আরও ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৫৬ জনে। নতুন আক্রান্ত দুজনই পুরুষ। তাদের একজনের বয়স ৩০ থেকে ৪০ ও অপর জনের বয়স ৭০ থেকে ৮০ বছর। তবে তারা কোথা থেকে কিংবা কার সংস্পর্শে সংক্রমিত হয়েছেন সেই উৎস পাওয়া যায়নি।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত কোনও রোগীর মৃত্যু হয়নি। মৃতের সংখ্যা যা ছিল তা-ই অর্থাৎ ৬ জনেই রয়েছে।

আইইডিসিআরের হিসাব অনুযায়ী, দেশে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৬২ হাজার লোক। কিন্তু গেল কিছুদিনে বিদেশে থেকেই ফিরেছে প্রায় ৩-৪ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশি। এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘সবাই কোয়ারেন্টাইনে থাকবে এমন নিয়ম নেই। যারা আগে দেশে এসেছে তাদের কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন তো ১৪ দিন। সবাইকে একসঙ্গে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে এমন কোনও নিয়ম নেই। এখন সেই সংখ্যাটা কমছে।’

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ১৪১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি সনাক্ত হয়েছে। নতুন করে ৫ জনসহ মোট ৭৮ জন প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে আছে।

এর আগে গতকাল প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার কথা জানিয়ে তাঁর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম গণমাধ্যমকে জানান, দায়িত্ব পালনের সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য সব সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একইসঙ্গে করোনা ঝুঁকি এড়াতে এবং নিজ নিজ নিরাপত্তা নিশ্চিতেও নির্দেশনা দেন তিনি।

উল্লেখ্য, দেশে গত ৮ মার্চ করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি সনাক্ত হওয়ার ১১ দিন পর ১৮ মার্চ এ ভাইরাসে প্রথম কোনও ব্যক্তির মুত্যু ঘটে। এরপর করোনা আক্রান্ত হয়ে আরও ৫ জন মারা যান। বর্তমানে মোট আক্রান্ত ৫৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ২৬ জন এবং মোট মারা গেছেন ৬ জন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.