প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আরেকবার সুযোগ দিতে ভোটারদের প্রতি কাজল রায়ের আহ্বান

0 ১১০
নাটোর প্রতিনিধি : নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, বিএনপি-জামাতের হাতে বারবার নির্যাতিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা কাজল রায় বলেছেন ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শূণ্য হাতে দেশ গঠনের কাজ শুরু করেন।
চরম সংকটে থাকা সদ্য স্বাধীন প্রিয় বাংলাদেশকে নিয়ে তিনি ভেবেছিলেন হৃদয় দিয়ে। তার দুরদর্শী চিন্তা আর সুদক্ষ পরিকল্পনায় এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ। বছরের পর বছর অধিকার বঞ্চিত মানুষ নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছিল। মানুষ খুঁজে পাচ্ছিল সুখের ঠিকানা। সমৃদ্ধ এক নতুন বাংলাদেশ গড়ার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছিলেন জাতির পিতা।
ঠিক তখনই ঘাতকের দল, স্বাধীনতা বিরোধী চক্র স্বপরিবারের হত্যা করে বঙ্গবন্ধুকে। জাতির পিতার শাহাদাত বরণের পর বাংলাদেশ বিরোধী ঐ চক্র মনে করেছিল আর এগোবে না এই দেশ, ঘটেছিলও তাই। নব জাগরণে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ থমকে দাঁড়িয়েছিল সেদিন। থেমে গিয়েছিল এ দেশের এগিয়ে চলার গতি।
শোকের মাস আগস্টজুড়ে নাটোরের লালপুর ও বাগাতিপাড়া উপজেলার বিভিন্ন মসজিদ,মন্দিরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা আয়োজন করেন তিনি।একই সময় স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আরেকবার সুযোগ দিতে নাটোর-১ আসনের ভোটারদের আহ্বান জানান তিনি।তিনি বলেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ আসনে যাকে মনোনয়ন দেবেন তাঁর পক্ষেই তিনি কাজ করবেন।
কাজল রায় বলেন, বছরের পর বছর এ দেশের অগ্রগতি থমকে থাকার পর দেশ পরিচালনার দ্বায়িত্ব পান দেশরত্ন শেখ হাসিনা। তিনি তার যোগ্যতা, দক্ষতা আর সুদুরপ্রসারী দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে নতুন এক বাংলাদেশ গড়তে মনোনিবেশ করলেন। দেশের মানুষের ভাগ্যন্নোয়নে তার যে ভাবনা আর নিরলস পরিশ্রম তার সুফল আজ পাচ্ছেন দেশবাসী। আজকের যে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলা বাংলাদেশ দেশরত্ন শেখ হাসিনার দক্ষতা আর দেশপ্রেমেরই ফসল। জননেত্রী শেখ হাসিনা ধমকে দাঁড়ানো এক বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন।
রাজনৈতিক কারণে মুখে প্রকাশ করতে না পারলেও বিরোধী রাজনৈতিক পক্ষও আজ দেশের উন্নয়নের কথা স্বীকার করেন। আজকের ডিজিটাল বিশ্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মডেল। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিশ্বের অনেক দেশের কাছেই এখন অনুকরণীয়।
শেখ হাসিনা এবারে ঘোষণা দিয়েছেন স্মার্ট বাংলাদেশের। এই ঘোষণার বাস্তবায়নের জন্য যা যা দরকার সবই তিনি এরই মধ্যে শুরু করেছেন। আমরা দেশরত্ন শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে গড়ে তুলব স্মার্ট বাংলাদেশ। এজন্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রতিটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ থেকে নিজ নিজ মেধা ও শ্রম দেয়ার আহবানও জানান তিনি।#

Leave A Reply

Your email address will not be published.