প্রস্তুতি ম্যাচে কী পেলো বাংলাদেশ?

0 127

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ অনুমিতভাবেই ড্র হয়েছে। এই ম্যাচ দিয়ে অতিথিরা সেরে নিল টেস্টের প্রস্তুতি। তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন ২৫৭ রানে অলআউট ক্যারিবীয়রা। অধিনায়ক ব্রাফেটের ব্যাট থেকে আসে ৮৫ রান। বিসিবি একাদশের লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন নেন ৫ উইকেট। দারুণ বোলিং করে পেসার খালেদ আহমেদ নেন ৩ উইকেট। প্রথম দিনের শেষ বেলায় ব্যাট করতে নেমে পরদিন মধ্যাহ্ন বিরতির পর ১৬০ রানে অলআউট বিসিবি একাদশ। ক্যারিবীয় স্পিনের বিপক্ষে কোনা জবাব ছিল না বিসিবি একাদশের ব্যাটসম্যানদের।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

দ্বিতীয় দিন শেষ বেলায় ব্যাটিংয়ে নেমে গতকাল মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত ব্যাটিং করে ২৯১ রান করে ক্যারিবীয়রা। ক্যম্পবেল (৬৮), বোনার (৮০), দা সিলভা (৪৬), রেইফার (৪৯*) রান করে টেস্টের প্রস্তুতি সারেন। পরে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয় বোলিং প্রস্তুতিটও সারেন ক্যারিবীয়রা। বিসিবি একাদশ দুই উইকেট হারিয়ে ৬৩ রান তুলতেই দিনের খেলা শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে মাঠ ছাড়ে দুই দল। সাদমান ইসলাম ২৩  ও ইয়াসির আলী ৩৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। ব্যাটে-বলে নিজেদের সেরাটা ঠিকই বের করে এনেছেন ক্যারিবীয়রা। প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশে রাখা হয়নি কোনা বাঁ হাতি ও ডান হাতি অফ স্পিনার। মোট কথা সফরকারীরা ঠিকই ব্যাটে-বলে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ কি পেল এই ম্যাচ থেকে?

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস ২৫৭। বিসিবি একাদশ প্রথম ইনিংস ১৬০।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯১ (জন ক্যাম্পেবল ৬৮, এনকুরমা বোনার ৮০, জশুয়া দ্য সিলভা ৪৬, রেমন রেইফার ৪৯*। খালেদ আহমেদ ৩/৪২ মুকিদুল ইসলাম ৪/৫৯)।

বিসিবি একাদশ দ্বিতীয় ইনিংস ৬৩/২ (সাদমান ইসলাম ২৩*, ইয়াসির আলী ৩৩*। রেমন রেইফার ২/২৩)।

ফলাফল: ম্যাচ ড্র।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x