ফিওরেন্টিনার বিপক্ষে জুভেন্টাসের কষ্টার্জিত জয়

0 ১৬৪

রোববার ফিওরেন্টিনার বিপক্ষে ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয়ের মাধ্যমে সিরি-এ লিগে টেবিলের তৃতীয় স্থান ধরে রেখেছে জুভেন্টাস। এদিকে দ্বিতীয়ার্ধে মাত্র সাত মিনিটের তিন গোলে মোঞ্জাকে ৪-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে নাপোলি। তুরিনের আলিয়াঁজ স্টেডিয়ামে ২১ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন ফেডেরিকো গাত্তি। জেলিসন ব্রেমারের হেড পোস্টে লেগে ফেরত আসলে সঠিক জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকা এই ডিফেন্ডার ফিরতি বল জালে জড়ান।(বাসস/এএফপি)
গোল সম্পর্কে গাত্তি বলেছেন, ‘আমরা আজ সকালে অনুশীলনে এটা চেষ্টা করেছি। এসব ক্ষেত্রে ভাগ্যেরও সহায়তা লাগে। এটা সত্যি অনেক বড় জয়। দুটি কঠিন মাসে আমরা অনেকগুলো বড় ম্যাচ খেলেছি। মৌসুমের এ পর্যায়ে এসে এখন আসলে সবাই পরিশ্রান্ত। কিন্তু এখনো প্রায় দেড় মাসের মত খেলা বাকি আছে, যেখানে আরো অনেক ম্যাচ আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে।’
এই জয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা বোলোনিয়ার থেকে চার পয়েন্ট এগিয়ে তৃতীয় স্থান ধরে রাখলো জুভেন্টাস। দিনের প্রথম ম্যাচে রেলিগেশন খরায় তাকা ফ্রোসিনোনের সাথে হতাশাজনক গোলশুন্য ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে বোলোনিয়া। এই প্রথমবারের মত আধুনিক চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার দৌড়ে টিকে আছে বোলোনিয়া। এর আগে ১৯৬৪ সালে ইউরোপীয়ান কাপে বোলোনিয়া এক রাউন্ড খেলেছিল। শেষ ১০ ম্যাচে আটটিতেই জয় তুলে নিয়ে এখন সেই স্বপ্নের অন্যতম দাবীদার হয়ে উঠেছে বোলোনিয়া।
এর আগে সর্বশেষ নয় ম্যাচ থেকে মাত্র সাত পয়েন্ট অর্জণ করতে সক্ষম হয়েছে জুভেন্টাস। ইতালিয়ান সেমিাইনালের প্রথম লেগে ল্যাজিওকে ২-০ গোলে হারানোর একদিন পরেই সিরি-এ লিগে কালকের জয় নিশ্চিত করেছে তুরিনের জায়ান্টরা।
কালকে জয়টা জুভেন্টাসের জন্য মোটেই সহজ ছিলনা। তাদের তিনটি গোল অফসাইডের কারনে বাতিল হয়েছে। এর মধ্যে সাবেক ফিওরেন্টিনা ফরোয়ার্ড ডুসান ভøাহোভিচের গোলও বাতিল হয়। এরপর পুরো দ্বিতীয়ার্ধে আর কোন গোল আদায় করতে পারেনি স্বাগতিকরা। বিপরীতে এই জয়ের জন্য জুভেন্টাস তাদের পোলিশ গোলরক্ষক ওজিচে সিজিসনিকে ধন্যবাদ দিতেই পারে। ৭৪ মিনিটে নিকোলাস গঞ্চালেজের কার্লিং শট দুর্দান্তভাবে রুখে দিয়ে সিজিসনি জুভেন্টাসকে রক্ষা করেছেন।
এরপর দ্বিতীয়ার্ধে ফিওরেন্টিনা আধিপত্য দেখালেও সমতায় ফিরতে ব্যর্থ হয়। লিগে টানা চতুর্থ ম্যাচে জয়বিহীন থাকায় ফিওরেন্টিনা টেবিলের ১০ম স্থানেই রয়েছে।
ইউ-পাওয়ার স্টেডিয়ামে ৯ মিনিটে মিলান ডুরিচের গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিক মোঞ্জা। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নাপোলিকে শেষ পর্যন্ত কোন অঘনের শিকার হতে দেননি ভিক্টর ওশিমেন, মাত্তেও পলিটানো ও পিটর জিলেনস্কি। আরেন্দ্র কোলপানির ডিফ্লেটকেড শট মোঞ্জাকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনার ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত তা সান্তনা হয়েই থেকেছে। ৫৫ মিনিটে ওশিমেনের গোলে সমতায় ফিরে নাপোলি। এরপর ৫৭ মিনিটে সফরকারীদের এগিয়ে দেন পলিটোনো। ৬১ মিনিটে জিলেনস্কির গোলে নাপোলি জয়ের সুবাতাস পেতে থাকে। অক্টোবরের পর এটাই জিলেনস্কির প্রথম গোল। কিন্তু কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে কোলপানির গোলে মোঞ্জা লড়াইয়ে ফিরে আসে। ৬৯ মিনিটে গিয়কোমো রাসপাডোরির গোলে নাপোলির সপ্তম জয় নিশ্চিত হয়।
ম্যাচ শেষে পলিটানো বলেছেন, ‘আজ আমরা নিজেদের যোগ্যতার সত্যিকারের প্রমান দিয়েছি। আমাদের নিজেদের মধ্যে এই বিশ^াস আনতে হবে যে আমরা ভাল দল। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১৫ মিনিট আমরা যেভাবে খেলেছি সেভাবেই প্রতি ম্যাচে খেলতে চাই। এবারের মৌসুমে আমাদের ধারাবাহিকতার অভাব ছিল। আমরা একটি ভাল দল, এটার প্রমান বারবার দিতে হবে। আমাদের প্রত্যেককেই অতিরিক্ত কিছু দিতে হবে। কারন মৌসুম শেষ হতে আর মাত্র সাত ম্যাচ বাকি আছে। এখনো বেশ কিছু পয়েন্ট পাওয়া বাকি।’
ফ্রান্সেসকো কালজোনার দল এবার ইন্টার মিলানের কাছে তাদের লিগ শিরোপা ট্রফি দিয়ে যাচ্ছে, এতে কোন সন্দেহ নেই। শীর্ষ চারের সর্বশেষ অবস্থানে থাকা বোলোনিয়ার থেকে ১০ পয়েন্ট পিছিয়ে এই মুহূর্তে নাপোলি টেবিলের সপ্তম স্থানে রয়েছে। যদিও এখনো সুযোগ আছে পঞ্চম স্থানে থেকে লিগ শেষ করার। আর সেটা করতে পারলে আগামী বছর বড় পরিসরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসরে হয়তো পঞ্চম দলটিও সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জিত হবে।
স্থানীয় প্রতিদ্বন্দ্বী ল্যাজিওকে দুই বছরের মধ্যে প্রথমবারের মত ১-০ গোলে পরাজিত করে রোমা পঞ্চম স্থানে থাকা বোলোনিয়ার থেকে পয়েন্টের ব্যবধান তিন’এ নামিয়ে এনেছে।
নাপোলির থেকে দুই পয়েন্ট এগিয়ে ষষ্ঠ স্থানে থাকা আটালান্টা বিস্ময়কর ভাবে ২-১ ব্যবধানে  কালিয়ারির কাছে হেরে গেছে। রেলিগেশন জোনের ঠিক উপরে থাকা ভেরোনা টেবিলের মধ্যম অবস্থানের দল জেনোয়ার কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.