বগুড়ার সুখানপুকুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র মাদকের আখড়া, চিকিৎসা সেবা দেয় অফিস সহকারি!

0 ৯৭

বগুড়া প্রতিনিধি: গ্রামীন অবহেলিত জনগোষ্ঠির চিকিৎসা সেবার অনেকটাই ভরসাস্থল ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র। এই স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে চিকিৎসা সেবা নিয়ে থাকে মানুষজন। এক সময় এ উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি চিকিৎসার ভরসাস্থল হলেও এখন অতটা চিকিৎসা পায়না গরীব ও অসহায় রোগীরা। আর পাবেই বা কি করে ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মরত ডাক্তার মাসেও দুইদিন যায়না।

এমন অভিযোগ রয়েছে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার হুমায়ন কবির ইমরানের বিরুদ্ধে। তিনি কাগজ কলমে হাজিরা মাধ্যমে বেতন উত্তোলন করছে। অথচ বাস্তবে ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা দিচ্ছে আব্দুল কুদ্দুস নামের একজন অবসরপ্রাপ্ত অফিস সহকারি। এমন সরকারী ভাবে গড়ে তোলা উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি রয়েছে বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সুখানপুকুর এলাকায় সৈয়দ আহম্মেদ কলেজ এলাকায়। তবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি দীর্ঘদিন ধরে পরিচর্যার অভাবে বর্তমানে মাদকসেবীদের নিরাপদ আখড়া হিসেবে পরিণত হয়েছে।

সম্প্রতি সরেজমিনে গাবতলী উপজেলার সুখানপুকুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র এলাকায় গেলে উঠে আসে ভিন্ন চিত্র, জানা যায় ওই কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হুমায়ন কবিরের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগের তথ্য। স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মুল ভবনে গিয়ে আব্দুল কুদ্দুস নামের এক ষাটোর্ধ বয়োবৃদ্ধকে চিকিৎসা দিতে দেখা যায়। তবে তিনি নিজেকে ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের অবসরপ্রাপ্ত অফিস সহকারি হিসেবে ৬ হাজার টাকা মাসিক বেতনের চুক্তিতে চিকিৎসক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। সেক্ষেত্রে ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দায়িত্বরত উপ-সহকারি কমিউনিটি অফিসার হুমায়ুন কবিরের অবস্থান জানতে চাইলে, তিনি মাসে ২/১দিন আসে বলে দাবী করে আব্দুল কুদ্দুস। তাছাড়া হুমায়ন কবির চাকুরি সুবাদে থাকেন জেলা শহরে এবং সুখানপুকুরে ফাতেমা ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল নামক একটি নিজস্ব প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন।

অপরদিকে উপ-স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর মুল ভবনের পিছনে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা ৬ থেকে ৭টি পুরানো ঘড় আছে, আর সেই ঘড়গুলোর মধ্যে ইয়াবা, ট্যাপেন্টাডল, গাঁজাসহ অনেক ধরনের মাদকদ্রব্যের সরমঞ্জামাদির দেখা মেলে। এছাড়াও মাদক সেবন ও বিক্রিতে ওইসব ঘর নিরাপদ স্থান হিসেবে বেছে নেয় মাদকাসক্তরা।

এদিকে উপ-সহকারি কমিউনিটি অফিসার হুমায়ুন কবির ইমরানকে খুজতে তারই নিজস্ব প্রতিষ্ঠান ফাতেমা ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল গিয়েও সাক্ষাত মেলেনি। তবে ওই ডাযাগনস্টিক সেন্টারটিতেও কর্মরত কোন চিকিৎসককে দেখতে পাওয়া যায়নি। তবে ম্যাডর্স নামের বেসরকারি নার্সিং ইন্সটিটিউট থেকে ২ বছরের শিক্ষায় অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী দিয়ে চলছে চিকিৎসা সেবা। সীমিত বেতন দিয়ে ১২ ঘন্টার অধিক সময় ধরে ডিউটি করেন নার্স এবং কর্মচারিরা। তবে ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে নিজেকে হুমায়ন কবির ইমরানের ভাই এবং তিনিও মেডিকেল সংক্রান্ত কোন প্রশিক্ষণ গ্রহন করছেন বলে দাবী করেন।

অবসরপ্রাপ্ত অফিস সহকারি আব্দুল কুদ্দুস বলেন, ২০২১ সালে অবসর গ্রহনের পর থেকেই মাসিক চুক্তিভিত্তিক ৬ হাজার টাকা বেতনে চাকুরীর ব্যবস্থা করে দেন উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার হুমায়ন কবির সাহেব। তবে তিনি উপ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অদূরে খুললেন ফাতেমা ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল খুলেছেন এবং বেশিরভাগ সময় তার ক্লিনিকেই দেন বলে স্বীকার করেন।

এ বিষয়ে জানতে উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার হুমায়ন কবির ইমরানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়মিত যান বলে দাবি করে জানান, ‘আমার সপ্তাহে ২দিন গাবতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নাইট ডিউটি করতে হয়, আর নাইট ডিউটি করলে দিনের বেলা সেই ২ দিন আমি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ বসতে পারিনা।’ এছাড়াও স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিত্যক্ত ঘরের মধ্যে থেকে মাদকের বিক্রি হয়, কিন্তু ‘বখাটেদের ভয়ে কিছু প্রতিবাদ করতে পারিনা।’ তবে আরেক প্রশ্নে ‘তার ক্লিনিকে কোন অদক্ষ জনবল নেই’ দাবী করেন।

গাবতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: শারমীনা পারভীন বলেন, ‘অফিস সহকারি দিয়ে চিকিৎসা দেয়া যাবেনা, এটা অন্যায়, তবে তাকে দিয়ে পিয়নের কাজ করা যেতে পারে।’ আর মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে থানা পুলিশের সহায়তা নেয়া হবে।’

ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মাদকের বিস্তার বিষয়ে গাবতলী মডেল থানার অফিসার(ওসি) সনাতন চন্দ্র সরকার বলেন, ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বা সরকারি প্রতিষ্ঠানে মাদকের বিস্তার নিয়ে আমার কাছে কোন অভিযোগ নেই তবে ‘মাদক নির্মূলে সর্বদা তৎপর পুলিশ, তাই সেখানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হবে’।

উপ-সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার অনুপস্থিত থাকা নিয়ে এমন প্রশ্নের উত্তরে বগুড়া সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শফিউল আজম বলেন, এ সংক্রান্ত অভিযোগ পাইনি, পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর মাদকের ব্যাপারের সংশ্লিষ্ট থানার ওসির সাথে যোগাযোগ করতে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.