বগুড়ায় কর মেলা ॥ আদায়ে লক্ষ্যমাত্রা ৪৪৬ কোটি টাকা

0 15

বগুড়া প্রতিনিধি: আগামীকাল ১৪ নভেম্বর থেকে বগুড়ায় বিয়াম ফাউন্ডেশন আঞ্চলিক কেন্দ্রে আয়কর মেলা শুরু হচ্ছে। গত অর্থ বছরের চেয়ে ৫২ কোটি টাকা বেশি কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রাকে গুরুত্ব দিয়ে বগুড়া কর অঞ্চল বিভাগ ইতোমধ্যে কর আদায়ের লক্ষ্য মাত্রা পুরণের জন্য কর অঞ্চল বগুড়ার আওতাধিন জেলা গুলোতে জরিপ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে চলতি অর্থ বছরে কর অঞ্চল বগুড়াকে ৪৪৬ কোটি টাকা কর আদায়ের টার্গেট দেওয়া হয়েছে। গত অর্থ বছরে বগুড়া কর অঞ্চলের কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৯৪ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হলেও আদায় হয়েছে ৪০৩ কোটি টাকা। এ লক্ষে আগামী ২০ জুনের মধ্যে ৪০ হাজার নতুন করদাতা সনাক্ত করা হবে। যাদের আয় নুন্যতম আড়াই লাখ টাকার উর্দ্ধে। বগুড়ায় ১ লাখ ৪৬ হাজার ৯৯৮ জন টিন ধারী হলেও নিয়মিত কর দাতা হলেন ১ লাখ ৪ হাজার ৫৫০ জন।
এবছর বগুড়ায় অনুষ্ঠিত আয়কর মেলায় কর অঞ্চল হিসেবে বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, জয়পুরহাট ও গাইবান্ধা জেলার মোট ২৮ করদাতাকে সম্মাননা প্রদান করা হবে। বগুড়া আয়কর মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাদের সন্মাননা প্রদান করা হবে। প্রতি জেলার ৭ জন করে মোট ৪ জেলার ২৮ জনকে সম্মাননা প্রদান করা হবে। এরমধ্যে ২ জন দীর্ঘ মেয়াদী করদাতা, ৩ জন সর্বোচ্চ করদাতা, একজন সর্বোচ্চ নারী করদাতা, একজন চল্লিশ বছরের নিচে তরুন কর দাতা।
এ বছর বগুড়ার যারা সম্মাননা পাচ্ছেন তারা হলেন সর্বোচ্চ করদাতা বগুড়া চেম্বার এন্ড কমার্সের সভাপতি মাছুদুর রহমান মিলন সিআইপি, লিয়াকত আলী এবং অশোক রায়। দীর্ঘমেয়াদী কর দাতারা হলেন মরিয়ম বেগম ও আবুল মনসুর খাঁন। নারী কোঠায় সর্বোচ্চ করদাতা হলেন জিনিয়া পারভীন এবং তরুন হিসেবে সর্বোচ্চ করদাতা আনোয়ার হোসেনও সম্মাননা পাচ্ছেন ।
সিরাজগঞ্জে সম্মাননা পাচ্ছেন তারা হলেন সর্বোচ্চ করদাতা সালাউদ্দিন রনি, জান্নাত আরা হেনরী এবং দীপক কুমার ঘোষ। দীর্ঘমেয়াদী কর দাতা দুলাল কুমার সাহা ও তপন কুমার দাস। নারী করদাতা হলেন সাথী ঘোষ এবং তরুন করদাতার সম্মানা পাচ্ছেন মো. মোস্তফা কামাল।
গাইবান্ধায় সম্মাননা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে আব্দুল লতিফ হক্কানী, সাইদুর রহমান এবং শাহ আহসান হাবীব। দীর্ঘমেয়াদী কর দাতারা প্রবীর কুমার সাহা ও খন্দকার মোস্তাক অহমেদ। নারী করদাতা মোছা. দিল আফরোজ বানু সুইটি এবং তরুন করদাতার সম্মাননা পাচ্ছেন শরীফ মো. সুমন।
জয়পুরহাটে সম্মাননা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ করদাতা স্বজন কুমার জাজোদিয়া, মো. জাহিদ ইকবাল এবং মো. নুরুল আমিন। দীর্ঘমেয়াদী কর দাতারা মো. বজলুর রশিদ মন্টু ও এফ এম ইকবাল হোসেন। নারী করদাতা জান্নাতুল ফেরদৌস রনি এবং তরুন করদাতার সন্মানা পাচ্ছেন মাহমুদুল হাসান মেহেদী।

এ ব্যাপারে কর অঞ্চল, বগুড়ার কমিশনার আবু সাইদ মোঃ মুস্তাক জানান, রাষ্ট্রের সর্বক্ষেত্রে একটি রাজস্ব বান্ধব সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠা এবং করদাতা বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির ধারাবাহিকতায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলাভিত্তিক সেরা করদাতাদের মাঝে সম্মাননা ও সনদপত্র বিতরণ করা হবে। এতে কর দাতারা উৎসাহিত হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.