বাঘায় ফেন্সিডিলের চালানসহ আটক ২

0 ১১১

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর বাঘায় হেরোইন এবং গাঁজা উদ্ধারের রেকর্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই জেলা পুলিশ রাজশাহীর গোয়েন্দা শাখার অভিযানে স্মরণকালের বড় ফেন্সিডিলের চালান আটক করেছে। বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩ টার দিকে রাজশাহী জেলার বাঘা থানার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের আলাইপুর গ্রামের একটি আম বাগানে ভারত থেকে পাচার করে আনা ৭৪৩ বোতল ফেন্সিডিল আটক করা হয়েছে।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জেলা পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন এর নির্দেশনায় জেলা ডিবির এসআই ইনামুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টিম এই অভিযান চালিয়ে উল্লেখিত মাদকসহ দুইজন ব্যক্তিকে আটক করে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- রাজশাহী জেলার বাঘা থানার আলাইপুর গ্রামের মৃত খামেদ মন্ডলের ছেলে মোঃ চপল আলী (৩৫) এবং ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার সাগরপাড়া থানার কাগমারি গ্রামের মৃত নুজবার শেখের ছেলে মোঃ জামরুল শেখ (৩৪)।

জানা গেছে, আটক ভারতীয় নাগরিক জামরুল গত রাতেই এই পরিমান ফেন্সিডিল পদ্মা নদী পাড়ি বাংলাদেশে নিয়ে আসে। বাংলাদেশের মাদক ব্যবসায়ীরা এই ফেন্সিডিল জামালের আম বাগানে গ্রহণ করবে এমন তথ্য পেয়ে গোয়েন্দা শাখার সদস্যরা আম গাছে উঠে অপেক্ষা করতে থাকে। ভারতীয় নাগরিক জামরুল দেশি মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে ফেন্সিডিলের বস্তাগুলো হস্তান্তর করার এক পর্যায়ে ডিবি সদস্যবৃন্দ তাদের উপর ঝাপিয়ে পড়লে তিন মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে যায় এবং দুইজনকে আটক করা সম্ভব হয়।

জামরুলকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, এর আগেও সে অসংখ্যবার এমন বড় বড় চালান বাংলাদেশে এনেছে। সে আরও জানায়, বর্ষাকালে নদীতে পর্যাপ্ত পানি থাকায় ফেন্সিডিল আনা সুবিধা হয়। সে ফেন্সিডিলের বস্তা টিউবের সাথে বেঁধে সাঁতরে নদী পাড়ি দেয়। জিজ্ঞাসাবাদে চপল জানায়, সে দীর্ঘদিন ধরে ফেন্সিডিলের ব্যবসা করে আসছে। সে বাঘা থানার তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে বাঘা থানায় ৫টি মাদক এবং বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলা রয়েছে। মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত জেলা পুলিশের অভিযান চলবে।

উল্লেখ, গত মাসে জেলা পুলিশের অভিযানে সাড়ে সাত কেজি হেরোইনসহ এক ব্যক্তিকে এবং ৫৬ কেজি গাঁজাসহ দুইজন ব্যক্তিকে আটক করেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.