ব্রিটেন করোনায় মৃত স্বাস্থ্যকর্মীদের ৬০ হাজার পাউন্ড দেবে

188

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রিটেনে করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে মারা যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীদের পরিবারপ্রতি ৬০ হাজার পাউন্ড দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। যা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৬৩ লাখ টাকা। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে ৮২ জন স্বাস্থ্যকর্মী ও ১৬ জন কেয়ারারের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) প্রেস ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন। তাই তাদের পরিবারের জন্য আমাদের দায়িত্ববোধ রয়েছে। তাদের পরিবারের সদস্যদের যত্ন নিতে সরকার জীবন বীমা স্কিম ঘোষণা করেছে।

ম্যাট হ্যানকক বলেন, ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস) ও ফ্রন্টলাইন কর্মীদের জন্য জীবন বীমা স্কিমের আওতায় তাদের পরিবারকে ৬০ হাজার পাউন্ড করে প্রদান করবে সরকার। তিনি বলেন, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো, “প্রিয়জনের ক্ষতির কোনো কিছুই প্রতিস্থাপন করা যায় না, তবে তাদের পরিবারের জন্য আমাদের সম্ভব সব করতে চাই।”

এদিকে লকডাউনের কারনে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য সহজ শর্তে ২ থেকে ৫০ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত ঋণ প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী ঋষি শৌনাক সোমবার হাউজ অব কমন্সে এই ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, ব্যাংকগুলোকে অর্থ বরাদ্ধ দিতে সরকার ১০০% গ্যারান্টি সমর্থন দিবে। শর্তের মধ্যে রয়েছে- ঋণ গ্রহণের পর এক বছর সরকার উক্ত অর্থের সুদ পরিশোধ করবে।

পার্লামেন্টে তিনি বলেন, “আমরা যদি আমাদের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার করার সাথে সাথে তাদের গতিশীলতা এবং উদ্যোক্তা মনোভাব থেকে উপকৃত হতে চাই, তবে তাদের এই সঙ্কট পাড়ি দিতে অতিরিক্ত সহায়তার প্রয়োজন হবে।”

ঋষি শৌনাক হাউস অফ কমন্সকে জানিয়েছেন, এই প্রকল্পটি আগামী সপ্তাহে শুরু হবে। স্কিমটির জন্য অনলাইনে দুই পৃষ্ঠার সেল্ফ সার্টিফিকেশন ফর্ম পূরণ করা প্রয়োজন হবে।

তিনি বলেন, ব্যাংকগুলোর ঋণ বিতরণ বিলম্বের কারণে সরকার এই স্কিম চালু করছে। অনেক ব্যাংক বেশি কাজের চাপে প্রয়োজনীয় ক্রেডিট চেক না করতে পারায় অনেকেই ঋণ পাচ্ছেন না।

ব্রিটেনে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ১ লাখ ৫৭ হাজার ১৪৯, মারা গেছে ২১ হাজার ৯২ জন।

x