ভারতীয় সিরিয়াল নিয়ে অভিযোগ তুললেন রূপান্তরকামী অভিনেত্রী

0 ২০৪

ভারতীয় ছোটো পর্দা বা সিরিয়াল বেশ জনপ্রিয়। তবে সম্প্রতি একের পর এক ধারাবাহিক বন্ধ হচ্ছে, আবার অনেক নতুন ধারাবাহিক শুরুও হচ্ছে। ধারাবাহিক শেষে অনেকেই কাজ হারানোর অভিযোগ করে থাকেন। তবে এবার এক বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন রূপান্তরকামী অভিনেত্রী সুজি ভৌমিক।

ছোটপর্দার চেনা মুখ সুজি। ফিরকি ধারাবাহিকে দর্শকের নজরে এসেছিলেন তিনি। রূপান্তরকামীদের নিয়ে তৈরি এই ধারাবাহিকে তিনি অভিনয় করেছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছুদিন আগেই তিনি লেখেন, ‘একদম কাজ নেই’।
ঋতুপর্ণার সাথে সিজু

ঋতুপর্ণার সাথে সিজু

সম্প্রতি সপ্তর্ষি মৌলিক ও সোনামণি সাহা অভিনীত ধারাবাহিক ‘এক্কা দোক্কা’-এ চিকিৎসকের চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। তবে বেশ অনেকদিন কোনও ধারাবাহিকে দেখা যায়নি সুজিকে।

কেন হাতে কাজ নেই সুজির, সেবিষয়ে সেই সময় কোনও কথা বলেননি অভিনেত্রী। তবে বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খুললেন তিনি। কলকাতা থেকে নিজের শহর বহরমপুরে চলে গেছেন তিনি। সেখান থেকেই বেশ কয়েকটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন। নিজের লিঙ্গ পরিচয় থেকে শুরু করে তাঁর প্রতি সমাজের দৃষ্টির কথাও তুলে ধরেছেন সুজি।

অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘আজ আমি ট্রান্সজেন্ডার বলে অভিনয় জগতে কোন দাম নেই কাজ ও নেই। আমার জীবনের সব থেকে বড় ভুল অভিনয় করে সৎ ভাবে করে খাওয়ার চেষ্টা করেছিলাম।’ সুজির কথাতেই উঠে এসেছে হতাশার কথা।

Open photo

Open photo

রূপান্তরকামী অভিনেত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, তিনি রূপান্তরকামী বলে কি শুধু সেই চরিত্রেই তার কথা ভাবা হবে। কেন পুরুষ ও মহিলা চরিত্রের মতো চিকিৎসক, পুলিস, নার্স, কারোর আত্মীয়, কারোর বন্ধুর চরিত্রে তাদের কথা ভাবা হয় না। তার দাবি, টলিউড তাকে ও তার মতো রূপান্তরকামী অভিনেত্রীদের একটি গন্ডির মধ্যেই আটকে দিয়েছে। এই মানসিকতার বিরুদ্ধেই সোচ্চার হয়েছেন অভিনেত্রী।

অনেকেই পাশে দাঁড়িয়েছে সুজির। এক নেটিজেন লেখেন, ‘মানুষের জীবনে উঠানামা আসে, ভেঙে পড়লে হবে না লড়াই করতে হবে’। অন্য এক নেটিজেন লেখেন, ‘মন ছোট করো না সবকিছু সময়ের অপেক্ষায় এক না একদিন তোমার দিন আসবে। সবার জন্য কিছু না কিছু তোলা আছে।‘

অন্য এক ব্যক্তি লেখেন, ‘কত মেয়েলি ছেলে তাকে বুঝতে পারলে দোকানের কাজ দেয় না মালিক, এই তো আমাদের সমাজ’। আরেক জন লেখেন, ‘আমি একজন আর্টিস্ট ফোরাম মেম্বার হয়েও কাজ নেই , আগে প্রোডাকশন হাউজ থেকে ফোন করত, লাস্ট ফোন করেছিল ৪ বছর আগে তারপর কভিড এল আবার কাজ চালু হল কিন্তু কাজের জন্য ডাক আর এল না’।

Leave A Reply

Your email address will not be published.