মধ্যরাতে বান্ধবীকে নিয়ে রিসোর্টে একান্তে রোনালদো, অতঃপর…

0 169

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

গেল ২৭ জানুয়ারি ছিল বিশ্বসেরা পর্তুগিজ ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বান্ধবী তথা প্রেমিকা রদ্রিগেজের ২৭তম জন্মদিন। আর সে উপলক্ষে ইতালি সরকারের করোনাকালীন ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ভেঙে বান্ধবীকে নিয়ে মধ্যরাতে এক শহর থেকে অন্য শহরে প্রমোদভ্রমণে বেরুলেন এই জুভেন্টাস তারকা। আর তাতেই ঘটলো নতুন বিপত্তি। উঠলো সমালোচনার ঝড়।

 

বুধবার রাতে কোপা ইতালিয়ায় জুভেন্টাসের ম্যাচে রোনালদোকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছিল। বান্ধবীর জন্মদিন উপলক্ষে সেই রাতে বান্ধবীকে নিয়ে তুষারঘেরা আল্পস পর্বতমালা অঞ্চলের কুরমেয়ার রিসোর্টে যান রোনালদো।

তুরিন থেকে ৯৩ মাইল দূরের সেই রিসোর্টে বান্ধবীর সঙ্গে একান্তে সময় কাটান তিনি। সেখানে যেতে পিয়েদমন্ত ও ভাল্লে ডি’আউস্তার মাঝে সীমান্ত অতিক্রম করতে হয়।

ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যম ‘কোরিয়েরে দেল্লো স্পোর্ত’ জানিয়েছে, সীমান্ত অতিক্রম করে তুরিনের বাইরে গিয়ে ইতালি সরকারের করোনা বিধি ভঙ্গ করেছেন রোনালদো। এমনকি তুষারশোভিত শ্বেত-শুভ্র চাদর বিছানো আল্পস পর্বতমালায় স্নো-মোবাইলেরও চুটিয়ে ঘুরেছেন রোনালদো-জর্জিনা।

এছাড়া কুরমেয়ার অঞ্চলে লে মাসিফ নামের যে হোটেলটিতে বান্ধবীকে নিয়ে রোনালদো সময় কাটিয়েছেন, করোনা মহামারির কারণে ইতালিয়ান কর্তৃপক্ষ সেই হোটেলটি আরও আগে থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ ঘোষণা করেছিল।

বিধি ভেঙে বান্ধবীকে নিয়ে মাঝরাতে রোনালদোর প্রমোদভ্রমণ নিয়ে এখনও মুখ খোলেনি জুভেন্টাস ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে জর্জিনার ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তাদের ভ্রমণের প্রমাণ মিলেছে। যেখানে রোনালদোর সঙ্গে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন জর্জিনা।

তবে সম্ভাব্য ঝামেলার কথা ভেবে পরবর্তীতে সেই ভিডিওটি সরিয়ে ফেলেন তিনি। যদিও তার আগেই ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যমের নজরে আসে সেই ভিডিও। ঘটনাটি বেশ গুরুত্ব দিয়েই প্রচার করে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো।

এর আগেও করোনাবিধি ভেঙে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন ৩৫ বছর বয়সী এই জুভ তারকা। গেল অক্টোবরে পুরো জুভেন্টাস দল যখন আইসোলেশনে তখন হঠাৎই পর্তুগাল পাড়ি জমিয়েছিলেন রোনালদো। সেখানে গিয়ে তিনি করোনা পজিটিভ হন।

পরে ইতালিতে ফিরে ফের আইসোলেশনে থাকেন। ওইসময় ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রীও সিআরসেভেনের সমলোচনা করতে ছাড় দেননি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x