মহাদেবপুরে জনতা ব্যাংক পুনঃস্থাপনের দাবীতে এলাকাবাসীর মনববন্ধন

0 ৭৭

মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁ মহাদেবপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পাঁঠাকাটা হাটে জনতা ব্যাংকটি প্রায় ৫০ বছর ধরে চলা ব্যাংকিং চালিয়ে আসার পর হঠাৎ করেই গত বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) রাতের আঁধারে মান্দা উপজেলার সতিহাট বাজারে স্থানান্তর করা হয়েছে। এতে এলাকাবাসী ও গ্রাহকরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। জনতা ব্যাংকের পাঁঠাকাটা হাটের এ শাখাটি পুন:স্থাপনের দাবীতে শুক্রবার বিকেলে ব্যাংক চত্ত্বরে মানববন্ধন করে। এ মানববন্ধনে ব্যাংকের গ্রাহক, স্থানীয় ব্যবসায়ীরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি- পেশার ৫শতাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

জনতা ব্যাংকের এ শাখাটি পুন:স্থাপনের দাবী জানিয়ে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ ময়নুল ইসলাম, পাঁঠাকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম, পাঁঠাকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমিনুল ইসলাম, পাঁঠাকাটা বাজার বনিক সমিতির সভাপতি মো. আমজাদ হোসেন, স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. শামসুল ইসলামসহ আরো অনেকে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এ শাখার শাখা ব্যবস্থাপক মো. মোকলেছার রহমান কোন রকম পূর্ব নোটিশ ছাড়ায় চক্রান্ত করে রাতের আঁধারে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও কম্পিউটার নিয়ে চোরের মতো পালিয়ে গেছে।

তারা আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গ্রাম হবে শহর প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রতিটি গ্রামকে আধুনিকায়ন করছে, সেখানে প্রায় ৫০ বছর আগে স্থাপন করা ব্যাংকটি অন্য উপজেলায় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে কেন সে বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন তারা। এ শাখায় হাজারো মানুষ তাদের বিদ্যুৎ বিল, বিভিন্ন ভাতার টাকা উত্তোলন, ঋণ গ্রহণ, সঞ্চয় জমাসহ যাবতীয় লেনদেন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। এ ছাড়াও পাঁঠাকাটা হাটের উন্নয়নে আত্রাই নদীতে অচিরেই একটি ব্রিজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন স্থানীয় সাংসদ সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্ত্তী।

বক্তারা জনতা ব্যাংকের এ শাখাটি পাঁঠাকাটা হাটে পুন:স্থাপনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এ বিষয়ে শাখা ব্যবস্থাপক মো. মোকলেছার রহমান মুঠোফোনে জানান, উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের সিন্ধান্ত মোতাবেক শাখাটি পাশ্ববর্তী মান্দা উপজেলার সতিহাটে স্থানান্তর করা হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.