যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা স্যাটেলাইট ধ্বংসের হুমকি দিল উ. কোরিয়া

0 ১২৪
সিউলের একটি রেস্টুরেন্টে গত সপ্তাহে টেলিভিশনের খবরে উত্তর কোরিয়ার সামরিক গোয়েন্দা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের ছবি দেখছেন এক ব্যক্তি। ছবি : এএফপি

গত সপ্তাহে মহাকাশে প্রথমবারের মতো গোয়েন্দা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর আজ শনিবার (২ ডিসেম্বর) উত্তর  কোরিয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, যদি যুক্তরাষ্ট্র মহাশূন্যে তাদের কোনো সম্পদে কোনো ধরনের আঘাত হানে তবে তারা ওই দেশটির গোয়েন্দা স্যাটেলাইটগুলো ধ্বংস করে দিবে।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি (কেসিএনএ) দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে জানায়, এ ধরনের কাজকে যুদ্ধ ঘোষণার শামিল হবে বলে তারা মনে করে। খবর এএফপির।

নভেম্বরের শেষে উত্তর কোরিয়ার সফল গোয়েন্দা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর যুক্তরাষ্ট্রের এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা মন্তব্য করেন যে, ওয়াশিংটন প্রতিপক্ষের মহাকাশের সাফল্যকে পরিবর্তনীয় ও অপরিবর্তনীয় উভয় উপায়েই অস্বীকার করতে পারে।

এ সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ কমান্ডের মুখপাত্র শেরিল ক্লিনকেল রেডিও ফ্রি এশিয়ায় বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী সকল ডোমেইন জুড়ে থাকা কার্যকর ও প্রাণঘাতি শক্তির বিষয়গুলোকে কমিয়ে আনতে পারে।

আজ শনিবার (২ ডিসেম্বর) পিয়ংইয়ং হুমকি দিয়ে বলে যে, ওয়াশিংটন যদি উত্তর কোরিয়ার বৈধ অবস্থানে অনধিকার প্রবেশ ঘটায় তবে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা স্যাটেলাইটগুলো ধ্বংস করে দেবে। এক্ষেত্রে দেশটি নিজেদের স্যাটেলাইট কার্যাবলীর প্রতিই ইঙ্গিত দেয়।

উত্তর কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, যদি যুক্তরাষ্ট্র মহাকাশে তার অধিকার লঙ্ঘন করে সেক্ষেত্রে তার দেশ আত্মরক্ষায় সাড়া দেওয়ার মতো পদক্ষেপ নেবে যা হতে পারে মার্কিন গোয়েন্দা স্যাটেলাইটের কার্যক্ষমতাকে ধ্বংস করে দেওয়ার মতো কাজ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন কক্ষপথে স্যাটেলাইট পাঠানোর মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের সক্ষমতা বাড়বে বিশেষ করে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সামরিক সংঘাতের ক্ষেত্রে দেশটির বিভিন্ন গোপন তথ্য পেতে।

গত সপ্তাহে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর উত্তর কোরিয়া দাবি করে আসছে যে, তারা ওই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তোলা যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক স্থাপনার অনেক ছবি পেয়েছে। তবে এক্ষেত্রে তারা কোনো ছবি প্রকাশ করেনি।

উত্তর কোরিয়া দুইবারের ব্যর্থ চেষ্টার পর  মালিগিওং-১ নামের একটি স্যাটেলাইট কক্ষপথে সফলভাবে উৎক্ষেপণ করে।

দক্ষিণ কোরিয়া বলে আসছে যে, রাশিয়া এই কাজে উত্তর কোরিয়াকে কারিগরি সহায়তা প্রদান করেছে। এর বিনিময়ে রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে ব্যবহারের জন্য অস্ত্রশস্ত্র লাভ করেছে উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে, এমন দাবি করেছে তারা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.