যে ৬ কারণে স্বামীর ঘর ছাড়তে চান স্ত্রী

0 83

লাইফস্টাইল ডেস্ক: প্রতিটি সম্পর্কের মাঝেই সৌন্দর্য লুকানো থাকে। কেউই চায় না সেই সম্পর্কগুলো ভেঙে দিতে। আবার অনেকেই শত চেষ্টা করেও সম্পর্কগুলো টিকিয়ে রাখতে পারে না। বিশেষত, দাম্পত্য জীবনে যেসব সমস্যার কারণে নারীরা ডিভোর্স চান সেগুলো নিয়ে তারা তাদের পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে বহুবারই কথা বলেন। সমাধানের পথ খোঁজেন। কিন্তু উপায়ান্তর না পেয়ে একটা সময় বিচ্ছেদের পথেই হাঁটতে হয় ওই নারীকে।

বিশেষত যে ৬টি কারণে নারীরা তাদের স্বামীর কাছে ডিভোর্স চান, সেই কারণ গুলো নিচে তুলে ধরা হলো:

* সম্পর্কের মূল ভিত্তি হলো পারস্পরিক আস্থা ও বিশ্বাস। স্বামী যেমন স্ত্রীর কাছে সম্মান প্রত্যাশা করে স্ত্রীও একইভাবে মনে করেন তার স্বামী তাকে অবহেলা করবে না। তাকে সম্মান করবে। প্রিয় মানুষের অবহেলা মেনে নিতে না পেরে ডিভোর্সের দিকে অগ্রসর হয় নারীরা।

* কিছু কিছু অভ্যাস কিংবা কিছু একান্ত ব্যক্তিগত বিষয় অনেকের জীবনেই থাকে। কিন্তু বিয়ের পর সেই বিষয়গুলো সীমা অতিক্রম করলে তা একটা পর্যায়ে আর মেনে নিতে পারেন না স্ত্রী। তখনই সম্পর্কে ফাটল ধরে।

* প্রত্যেক নারীই স্বপ্নের রাজকুমারকে জীবনসঙ্গী হিসেবে কল্পনা করেন। কিন্তু বাস্তবে যখন তারা এক ছাদের নিচে বসবাস করেন তখন সেই রাজকুমারকেও খুবই সাধারণ মনে হয়। প্রতিদিনের রুটিন মাফিক জীবন একটা সময় একঘেয়ে লাগে। যা নারীদের পক্ষে মেনে নেয়া কঠিন।

* একসঙ্গে থাকতে গেলে প্রেম যেমন থাকে কিছু অভিযোগ আর অভিমানও থাকে।
কিন্তু পুরুষ সঙ্গীটি যখন প্রায় সময়ই কারণে অকারণে স্ত্রীর প্রতি অভিযোগের বাণ ছুড়েন তখন ওই নারীর পক্ষে স্বাভাবিক থাকা কঠিন হয়ে পড়ে। সবকিছুতেই তখন দমবন্ধ লাগে তার। সে তখন মুক্তি চায়। তাতেই ভাঙে ঘর।

* স্বামীকে যেমন অন্য কোনও পুরুষের সঙ্গে তুলনা করা যাবে না, একইভাবে স্ত্রীকেও পরনারীর রূপের সঙ্গে তুলনা করা যাবে না। তাতে সম্পর্কে ভাটা পড়ে।

* জীবনটা দুদিনের নয়। তাই একসঙ্গে জীবন সাগর পাড়ি দিতে হলে আস্থা রাখতে হবে সঙ্গীর প্রতি। তাকে যেকোনও বিষয় খোলামেলা বলতে হবে। মনের ভেতর কথা না লুকোনোই ভালো। কথা আড়াল করতে গেলেই সন্দেহ থেকে অবিশ্বাস জন্ম নেয়। তখনই বিচ্ছেদের বীজ শেকড় গাড়ে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x