রাজশাহীতে জাতীয় যুবজোটের ১৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

0 ৭০
স্টাফ রিপোর্টার : গৌরব,সংগ্রাম,সাফল্যের জাসদের সহযোগী যুব সংগঠন জাতীয় যুবজোট রাজশাহী জেলা ও মহানগরের উদ্যোগে ১৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে।
শনিবার সন্ধা ৭টার নগরীর বাটার মোড় এভারেস্ট টাওয়ারে রাজশাহী মহানগর জাতীয় যুবজোট নিজ কার্যালয়ে ১৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী কেক কেটে উদযাপন হয়েছে।পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
জাতীয় যুবজোটের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজশাহী মহানগর সভাপতি মো.শরিফুল ইসলাম সুজনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা জাসদের সহ-সভাপতি শামসুজ্জামান শামসু, রাজশাহী জেলা জাতীয় যুবজোটের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম মাসুদ,জাতীয় যুবজোট মহানগরের সংখ্যালঘু বিষয়ক সম্পাদক ফ্রেমানন্দ দেবনাথ,আইন বিষয়ক সম্পাদক মো.পাভেল ইসলাম মিমুল,প্রচার প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মো.আলিফ ইসলাম অনিক,বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তাওহীদ হাসান,দপ্তর সম্পাদক নাহিদ হাসান নাসিম,কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মো.সাইফুল ইসলাম সজীব,ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক সোহাগ রহমান বাপি প্রমুখ।
জাতীয় যুবজোটের সদস্য রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক সুমন চৌধুরীর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন,
রাজশাহী মহানগর যুবজোটের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো.শহীদ,সদস্য আজগর আলী,যুবনেতা হাবিবুর রহমান হাবিব,মো.সাইফুল ইসলাম,মো.সাঈদ,মো.হানিফসহ বিভিন্ন  থানা ও ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।
সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সুজন বলেন,
অস্বাভাবিক সরকার,ইউনুসের সরকার,রাজাকারের সরকার আনার ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করার পাশাপাশি দুর্নীতি-লুটপাট বন্ধ করে সুশাসন প্রতিষ্ঠা এবং যুব সমাজের কর্মসংস্থানসহ যুব অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম সমানতালে পরিচালনা করার আহ্বান জানান।
তিনি আরো বলেন,স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের চালিকা শক্তি হিসাবে কাজ করেছে যুব সমাজ।যুব সমাজের সংগ্রামেরই ফলাফল স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্র।
সাধারণ সম্পাদক সুমন চৌধুরী বলেন,দুর্নীতি-লুটপাট ও রাষ্ট্রীয় অর্থ-সম্পদের অপচয়,ভোগ-বিলাস বন্ধ এবং বিদেশে পাচার করার টাকা দেশে ফেরত আনলে খুব সহজেই যুবকদের বেকার ভাতা চালু করা সম্ভব।যুব সমাজ সব সময়ই অগ্রসর চিন্তার ধারক-বাহক এবং অন্যায়-
অনাচার-অবিচার-প্রতিক্রিয়াশীলতার বিরুদ্ধে সংগ্রামের অগ্রবাহিনী।
আইন বিষয়ক সম্পাদক পাভেল ইসলাম মিমুল বলেন,দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বমুখীতে জনগন আজ দিশেহারা নাজেহাল অসহায় সিন্ডিকেটের দৌড়াততো কমাতে হবে।এরা কিছু প্রভাবশালীদের আশ্রয় প্রশ্রয় এ জনগনের পকেট কেটে কোটি কোটি টাকার মুনাফা লুটে নিচ্ছে।এদের কে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে এসে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।চাকুরী ক্ষেত্রে প্রবেশের বয়স সিমা ৩৩ বছর করতে হবে।বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।
নেতৃবৃন্দ বলেন,অস্বাভাবিক সরকার,ইউনুসের সরকার,রাজাকারের সরকার আনার ষড়যন্ত্রের রাজনীতি রুখে দেয়ার জন্য যুব সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী যুব সংগঠনগুলোকে এক মঞ্চে ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.