রাজশাহী সিটির আয়তন  সম্প্রসারণ করে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে চাই- লিটন

0 ৭০

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহী সিটির আয়তন ৯৬ বর্গকিলোমিটার থেকে ৩৫০ বর্গকিলোমিটারে সম্প্রসারণ করতে চাই। কাগজপত্র তৈরি করে ইতোমধ্যে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আগামীতে আমি নির্বাচিত হলে সম্প্রসারিত এলাকায় কোন ফসলি জমি নষ্ট না করে প্রশস্ত রাস্তা, উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, আলোকায়ন, পার্ক, স্কুল-কলেজ, গোরস্থান-ঈদগাহ নির্মাণ সহ আধুনি সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে চাই।

শনিবার (১০ জুন) দুপুরে রাজশাহী চেম্বার ভবন সম্মেলন কক্ষে রাজশাহীস্থ বাঘা-চারঘাটবাসীদের সাথে নির্বাচনী মতবিনিময় এসব কথা বলেন তিনি।

এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে যে উন্নয়ন করেছি, সেটি আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন। প্রশংসা করেছেন। আপনারা আরো উন্নয়ন চান, আমি সেগুলো করতেও চাই।  উন্নয়ন অনেক হয়েছে, আরো হবে। যত বেশি ভোটের ব্যবধানে আমাকে বিজয়ী করতে পারবেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে তত বেশি অর্থ বরাদ্দ এনে উন্নয়ন করতে পারবো। এবার একটি কাজ করা দরকার, সেটি হলো কর্মসংস্থান।

পুরো রাজশাহী জেলাতেই দরকার। আপনারা সুযোগ দিলে এবার সেই কাজটি করতে চাই। ইতোমধ্যে রাজশাহী বিসিক শিল্পনগরী-২ এর কাজ শেষ হয়েছে। সেখানে প্রকৃত উদ্যোক্তাদের প্লট বরাদ্দ প্রদান করা হবে। সেখানে কৃষি ভিত্তিক শিল্প-কারাখানা গড়ে তোলা হবে।

রাজশাহীকে নতুন নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আনা হবে জানিয়ে রাসিকের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে কৃষি বিশ^বিদ্যালয় করা দরকার। এটি করা কঠিন কিছু হবে না। কারণ রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদে জায়গা আছে, ভবন আছে, শিক্ষক-শিক্ষার্থী আছে। এখন মন্ত্রীপরিষদে সিদ্ধান্ত, সংসদে পাস হওয়া ইত্যাদি কাজ সম্পন্ন করতে পারলে এটি করা যাবে। নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে এই কাজটি করতে চাই। রাজশাহীতে ইংলিশ মিডিয়াম সহ বিশেষায়িত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠা গড়ে তোলা হবে। ইতোমধ্যে হলিক্রস স্কুল এন্ড কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

সেন্ট যোসেফ সহ এই ধরনের আরো কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে সংশ্লিষ্টদের সাথে আমার কথা হয়েছে। তারা আসতে আগ্রহী। নির্বাচনে বিজয়ী হলেও এটিও হয়ে যাবে। আপনারা সকলে দোয়া করবেন, যাতে আমি নির্বাচিত হয়ে আমার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে পারি। আগামী ২১ জুন সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে জয়যুক্ত করুন।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য রায়হানুল হক, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, চারঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, বাঘা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. লায়েব উদ্দিন লাভলু, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, রাবি শিক্ষক প্রণব কুমার পান্ডে, প্রবীণ সাংবাদিক মোস্তাফিজুর রহমান খান আলম, বাঘা পৌরসভার মেয়র আক্কাস আলী, চারঘাট সমিতির সভাপতি সাইদুল ইসলাম, রাজশাহীস্থ বাঘা সমিতির সভাপতি ডা. মোঃ হাফিজুর রহমান, বীর  মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড হামিদুল হক, এ্যাড. আব্দুস সামাদ, পাকুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেরাজুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সঞ্চালনায় ছিলেন শরিফুল ইসলাম।

সভায় বক্তারা আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী এএইচএম  খায়রুজ্জামান লিটনকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার অঙ্গীকার করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.