রাবিতে  আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কনফারেন্স শুরু ৫-৬  অক্টোবর 

0 ১১৬
রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) বিজ্ঞান অনুষদের আয়োজনে প্রথমবারের মতো আগামী ৫-৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ভূমিকা নিয়ে আন্তর্জাতিক কনফারেন্স।
বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বিজ্ঞান ভবনের বিজ্ঞান অনুষদের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে  এ বিষয়টি জানান বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. সাহেদ জামান।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপকেরা জানান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গোলাম সাব্বির সাত্তারের সভাপতিত্বে কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. সুলতান-উল-ইসলাম (প্রশাসন) এবং উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. হুমায়ুন কবির (শিক্ষা)।
কনফারেন্সের রেজিষ্ট্রেশন শুরু আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে যা চলবে এ মাসের ৩০ তারিখ পর্যন্ত। গবেষকদের জন্য ৩ হাজার ও শিক্ষার্থীদের জন্য ১৫শ টাকা রেজিষ্ট্রেশন ফ্রি নির্ধারণ করা হয়েছে।
তাঁরা জানান, কনফারেন্সে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকগণ তাঁদের গবেষণাকর্ম উপস্থাপনা করবেন। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত গবেষকগণ তাঁদের স্ব-স্ব গবেষণাকর্ম উপাস্থাপনা করবেন। এ কনফারেন্সে বিজ্ঞান অনুষদভূক্ত শিক্ষক ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গ অর্গানাইজিং কমিটির সদস্য হিসাবে ভূমিকা রাখবে বলে জানানো হয়। ইউ.এস.এ, ফিনল্যান্ড, জাপান, ইন্ডিয়া, অস্ট্রেলিয়া, চীন এবং নেপালের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা সদস্য হিসেবে ভূমিকা পালন করবেন।
এ সম্মেলনে তিন জন কী-নোট স্পিকারের মধ্যে ইন্ডিয়ার পন্ডিসেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গুরমিত সিং, ডাটা সফ্ট সিস্টেম, বাংলাদেশ লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মি. মাহ্বুব জামান এবং জাপানের ওয়ানরিচ ইন্টারন্যাশনালের প্রেসিডেন্ট এন্ড সিইও মি. ইউসি হার্লে ইছিহাসি তাঁদের স্ব-স্ব গবেষণাকর্ম উাস্থাপনা করবেন।
সংবাদ সম্মেলনে কনফারেন্সের মূল উদ্দেশ্য সম্পর্কে আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক ও অনুষদের ডিন অধ্যাপক শাহেদ জামান বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জ্ঞান এবং দক্ষতা শেয়ার করতে একাডেমিক পেশাদার এবং শিল্প অনুশীলনকারীদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে তোলা। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (SDGs) অর্জনের জন্য শিল্প বিপ্লবের প্রযুক্তির উদ্ভাবন এবং ব্যবহারকে উন্নীত করা এবং কৌশল সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করুন।
তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসেবা, জলবায়ু পরিবর্তন, টেকসই উৎপাদন, এবং শিল্পের স্থিতিস্থাপক পুনরুদ্ধার সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রয়োগ সম্পর্কে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে জ্ঞান ভাগ করুন।
ড. সাহেদ জামান বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ভূমিকা শীর্ষক এই আন্তর্জাতিক কনফারেন্সটি বিশ্ববিদ্যালয় তথা দেশের ভাবমূর্তি আনয়নে গুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিমধ্যে ৩৭০ জন গবেষক তাঁদের গবেষণা কর্ম দাখিল করেছেন। এ সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে বলে জানান তিনি।
কনফারেন্স আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব ও পপুলেশন সায়েন্স এন্ড হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক আশরাফুল ইসলাম খানের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য প্রদান করেন আয়োজক কমিটির প্রচার বিষয়ক উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও গণিত বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক নাসিমা আক্তার।
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, গণিত বিভাগের অধ্যাপক সাজুয়ার রায়হান ও সহযোগী অধ্যাপক মো. রবিউল হক, প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ.ক.ম. আসাদুজ্জামান ও অধ্যাপক মো. সোহেল হাসান। তারা সবাই প্রচার বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য।

Leave A Reply

Your email address will not be published.