‘রূপান্তর’নাটক বিতর্ক এবার ভিডিওবার্তায় কী বললেন জোভান

0 ১৪৬
ছবি : ফারহান আহমেদ জোভানের ফেসবুক থেকে নেওয়া

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনা মধ্যে রাফাত মজুমদার রিঙ্কু পরিচালিত ‘রূপান্তর’ নাটকটি অনলাইন থেকে সরিয়ে ফেলেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান একান্ন মিডিয়া। নাটকটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলেছেন নাটকের নির্মাতা এবং অভিনেতা।

এবার ঈদে মুক্তি পাওয়া এই নাটককে ঘিরে ‘ট্রান্সজেন্ডার সংস্কৃতি’ মতবাদকে প্রমোট করার অভিযোগ করেছেন নেটিজেনরা। ফলে ফারহান আহমেদ জোভান রোষানলে পড়েছেন। সেইসঙ্গে তাকে অনেকেই বয়কটের ডাক দিয়েছে।

এর আগে জোভান জানিয়েছিলেন ভবিষ্যতে দর্শক পছন্দ করেন না এমন কাজ আর করবেন না। এবার সামাজিক মাধ্যমে এক ভিডিও বার্তায় দুঃখ প্রকাশ করলেন এই অভিনেতা। আজ শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি ২ মিনিট ১১ সেকেন্ডের ভিডিও পোস্ট করেন তিনি।

ওই ভিডিও বার্তায় জোভান বলেন, ‘আশা করি সবাই ভালো আছেন এবং নিজের পরিবার নিয়ে সুন্দর করে ঈদ কাটিয়েছেন। এই ঈদে আমার বেশকিছু নাটক প্রকাশ পেয়েছে এবং প্রথম দিন থেকেই ভালো সাড়া পাচ্ছিলাম। ঈদটা আমারও সুন্দরভাবে কাটতে পারত কিন্তু সেটি হয়নি। একটি অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয়ে আপনারা যেমন কষ্ট পেয়েছেন তেমনই আমিও কিন্তু কষ্ট পাচ্ছি। আমি একদমই ভালো নেই। আপনারা বুঝতেই পারছেন। কারণ আমাকে আমার শুভাকাঙ্ক্ষীরা সাপোর্ট দেয়ার চেষ্টা করছেন। হয়তোবা আমার মানসিক অবস্থা তারা বুঝতে পারছেন। এ কারণেই মনে হয়েছে আপনাদের কাছে কিছু কথা বলা দরকার।’

দুঃখ প্রকাশ করে অভিনেতা বলেন, আমার অভিনীত ‘রূপান্তর’ নাটক ঘিরে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তা একেবারেই অপ্রত্যাশিত। এই নাটকের মাধ্যমে কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার কোনো উদ্দেশ্য আমাদের নেই। আমি নিজেও মুসলিম পরিবারের ছেলে। আমি জানি আমি ধর্মকে কতটা বিশ্বাস করি, আল্লাহকে কতটা শ্রদ্ধা করি। এই নাটকের মাধ্যমে কোনো কিছু প্রমোট বা প্রতিষ্ঠিত করার উদ্দেশ্য আমাদের ছিল না। শুধু একটি ক্যারেক্টার প্লে করার চেষ্টা করেছি এবং সেটার মাধ্যমে এতগুলো মানুষকে কষ্ট দিয়েছি। সেটার আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আমি মনে প্রাণে আপনাদের সবার কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

জোভান বলেন, আমি দীর্ঘ ১১ বছর ধরে নাটক করছি। আজ আমার যে অবস্থান এর জন্য আমার একার অবদান নেই। দর্শকের ভালোবাসা ও সমর্থন ছিল বলেই এই অবস্থানে আসতে পেরেছি। তাই আমার কাজ করার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে দর্শককে একটু বিনোদন দেয়া, একটু তাদের খুশি করা। এজন্যই এত কষ্ট করি আমি।

সবশেষে অভিনেতা আরও বলেন, এরপর থেকে আমি আরেকটু বেশি সচেতন থাকব। সতর্ক থাকব আমার চরিত্র বাছাইয়ের ক্ষেত্রে। যেন তারা কোনোভাবেই মনক্ষুণ্ণ না হন। কষ্ট না পান। আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি, আমার যে কাজগুলো আপনাদের এতদিন ভালো লেগেছে তার থেকেও ভালো কাজ উপহার দেব। শুধু একটাই অনুরোধ আমার ওপর কোনো কষ্ট রাখবেন না। আমার জন্য দোয়া করবেন এবং সবাই ভালো থাকবেন। আপনাদের সবাইকে ভালোবাসি।

জোভান ছাড়াও ‘রূপান্তর’ নাটকে প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন সামিরা খান মাহি, সাবেরী আলম ও সমাপ্তি মাসুক।

Leave A Reply

Your email address will not be published.