লালপুরে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৫

0 ৫৯

নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের লালপুরে আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান গনিকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতরাতে নিহতের বড় ভাই কুতুব উদ্দিন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

নিহত ওসমান গনি উপজেলার ডাঙ্গাচিলান গ্রামের মৃত আখের আলীর ছেলে ও কদম চিলান ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এ ঘটনায় রাতেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উজ্জ্বল হোসেন জানান, গতকাল রবিবার সকালে লালপুর উপজেলার ডাঙ্গাচিলান এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান গনিকে তার বাড়ির অদুরে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এঘটনায় নিহতের বড় ভাই কুতুব উদ্দিন বাদি হয়ে রাতেই ২৫জনকে অভিযুক্ত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরে আসামীদের ধরতে অভিযান শুরু করে পুলিশ। রাতেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চালছে। এজাহার নামীয় গ্রেফতারকৃতরা হল, লালপুর উপজেলার পুকুরপাড়া মহল্লার মোখলেসুর রহমানের ছেলে মহসিন আলম ও একই গ্রামের মৃত তৈয়ব আলী সরদারের ছেলে মোখলেসুর রহমান, ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত নসিম উদ্দিন প্রামানিকের ছেলে আব্দুল লতিফ প্রামানিক।

তদন্তে প্রাপ্ত আসামিরা হল, উপজেলার দুয়ারিয়া গ্রামের নওশাদ আলীর ছেলে নাদিম হোসেন ও একই গ্রামের আফসার আলীর ছেলে জাকিরুল ইসলাম। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গতকাল রবিবার সকালে লালপুর উপজেলার ডাঙ্গাচিলান গ্রামের তার নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে বাড়ির অদুরে ডাঙ্গাচিলান বাজারে যান ওসমান গনি। চা খাওয়া শেষে কয়েকজন দুর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র হাতে গিয়ে ওসমান গনিকে এলোপাথারী কুপিয়ে হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয়। পরে তার মৃত্যু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত তাকে কোপাতে থাকে।

এ সময় ওসমান গনিকে বাঁচাতে কাউকে কাছে ভীড়তে দেয়নি দুর্বৃত্তরা। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে দুর্বৃত্তরা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.