শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক ও উদ্ভাবনী হতে হবে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

0 ১৮১
স্টাফ রিপোর্টার: শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক ও উদ্ভাবনী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহ্রিয়ার আলম, এমপি।  শনিবার (১০ জুন) দুপুরে রাজশাহীর বাঘায় শাহ্দৌলা সরকারি কলেজে  স্নাতক (সম্মান) ২য় ব্যাচের কোর্স সমাপনী ও প্রাক্তন অধ্যক্ষগণের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এ আহ্বান জানান।
শাহ্রিয়ার আলম বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ এবং চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিজ্ঞান চর্চার কোনো বিকল্প নেই। এজন্য সরকার কাজ করছে, তবে শুধু সরকার কাজ করলেই হবে না; শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানচর্চায় মনোযোগী হতে হবে।
তিনি শাহ্দৌলা সরকারি কলেজকে বাঘার একটি গৌরব উল্লেখ করে বলেন, ২০১৬ সালে শাহ্দৌলা সরকারি কলেজ জাতীয়করণ হয়। এই কলেজে উদ্ভিদবিজ্ঞান, প্রাণিবিজ্ঞান ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক পড়ানো হচ্ছে। উপজেলা পর্যায়ে একটি জাতীয় কলেজ স্থাপন সহজ বিষয় হয় নয়, এজন্য অনেক চড়াই-উতরাই পারি দিতে হয়েছে।
আজকে এই কলেজের অত্যন্ত আনন্দের দিন প্রথম ব্যাচের সকল শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়ে স্নাতক শেষ করেছে, দ্বিতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরাই বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত হয়ে একদিন এই কলেজের মুখ উজ্জ্বল করবে। আগামী ৫ বছরের মধ্যে এই কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিসিএস ক্যাডার হবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।
জীবনে কখনো হতাশ না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, পড়াশোনা শেষ করে চাকুরি করতে হবে এমন ভাবনা ঠিক নয়। তোমাদের চিন্তায় যদি সততা থাকে তা হলে অবশ্যই নিজের যোগ্যতায় যে কোনো পেশায় নিয়োজিত হলে সফলতা পাবে। তিনি অর্জিত শিক্ষাকে সঠিকভাবে কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন।
শাহ্দৌলা সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো: আবু বক্কর সিদ্দীকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: আশরাফুল ইসলাম বাবু।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী দ্বিতীয় ব্যাচের বিদায়ী শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। এ সময় কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষগণের হাতেও সম্মাননা স্মারক হিসেবে ক্রেস্ট তুলে দেন তিনি।
এর আগে প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে শাহ্দৌলা কলেজ মাঠ থেকে একটি আনন্দ র‌্যালি বের হয়ে উপজেলা মসজিদ প্রদক্ষিণ করে পুনরায় শাহ্দৌলা কলেজ মাঠে গিয়ে শেষ হয়। পরে তিনি কলেজে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।
এদিন বেলা এগারোটায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তাঁর আড়ানীস্থ বাসভবনে বাঘা উপজেলার দুস্থদের মাঝে অর্থসহায়তার চেক ও ঢেউটিন বিতরণ করেন। এ সময় তিনি সমাজসেবা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ১৭ জনকে ৫০ হাজার করে মোট সাড়ে আট লাখ টাকার চেক এবং ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে মোট ১৬ জনকে ২ বান্ডিল করে মোট ৩২ বান্ডিল ঢেউটিন ও ৬ হাজার করে মোট ৯৬ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.