শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে যুব সিরিজ বাংলাদেশের

0 ৮৩
বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মধ্যকার ম্যাচ। ছবি : বিসিবি

পুরুষ ও নারীদের জাতীয় দল মিলে গতকাল রোববার (১৬ জুলাই) পুরোটাই বাংলাদেশময় করে তুলেছিল। ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডেতে বাংলাদেশ নারী এবং টি-টোয়েন্টিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় পায় পুরুষ ক্রিকেট দল। এবার বড়দের পদাঙ্ক অনুসরণ করলেন ছোটরা।

পাঁচ ম্যাচের যুব ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ-১৯ দলকে তিন উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ-১৯ দল। এতে ম্যাচের পাশাপাশি ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নিল বাংলার যুবারা।

এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৯.৪ ওভারে ২১০ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে ৪৭.১ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ২১১ রান তোলে বাংলাদেশ।

চার ম্যাচ শেষে ব্যবধান ২-২ থাকায় শেষ ম্যাচটি হয়ে দাঁড়ায় ফাইনাল।

এমন ম্যাচে রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ। দলীয় ১৮ রানেই উইকেট বিলিয়ে আসেন দুই ওপেনার লুন প্রিটোরিয়াস (৮) ও থিবে গাজিদ (৫)। দুজনকেই ফেরান রিজান হোসেন। এরপর দেখেশুনে ইনিংস মেরামত করতে শুরু করেন ডেভিড টিগার। ৬৩ রান করা ডেভিড মাঝে রিচার্ড সিলেৎসোয়ানে (২৭) ও অধিনায়ক জুয়ান জেমসকে (৩২) পেলেও অন্যরা কেউই ক্রিজে পর্যাপ্ত সঙ্গ দিতে পারেনি। ফলে, ২১০ রানে থামে দক্ষিণ আফ্রিকার যুবাদের ইনিংস।

বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণে ছিল সম্মিলিত প্রচেষ্টা। অধিনায়ক মাহফুজুর রহমান রাব্বি নেন তিন উইকেট। এ ছাড়া, রোহানাত দোলা বর্ষণ, রিজান আহমেদ ও মোহাম্মদ রাফি পান দুটি করে উইকেট।

বোলাররা কাজ সহজ করে দিয়েছেন অনেকটা। ব্যাট হাতে ওপেনিং জুটিতে আদিল বিন সিদ্দিক ও মোহাম্মদ রিজওয়ান (১৩) ৪০ রানের সূচনা এনে দেন। রিজওয়ানের পর রিজান (৩) দ্রুত আউট হলেও তৃতীয় উইকেটে আদিল ও আরিফুল ইসলামের ৮৭ রানের জুটি বাংলাদেশকে নিরাপদ অবস্থানে নিয়ে যায়।

দলীয় ১৩৫ রানে তৃতীয় ব্যাটার হিসেবে আদিল আউট হন। অন্যদের নিয়ে বাংলাদেশের জয়ের তরী তীরের কাছে ভিড়িয়ে তবেই ফেরেন আরিফুল। দলীয় ১৮৯ রানে সপ্তম ও শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হন তিনি। বাকিটা পথ অধিনায়ক রাব্বি (১৫*) ও রাফি (৭*) নির্বিঘ্নে শেষ করেন। ১৭ বল হাতে রেখে বাংলাদেশ পায় তিন উইকেটের জয়।

আদিলের ব্যাট থেকে আসে ৫৮ রান। আরিফুল করেন সর্বোচ্চ ৬৮।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে লিয়ান আলডার চার ও জেমস নেন তিন উইকেট। কিন্তু, বাংলার যুবাদের ম্যাচ ও সিরিজ জয়ে বাঁধা হতে পারেননি তারা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.