সংস্কারের সড়কটি ১৫ দিনের মাথায় ভাঙ্গতে শুরু করেছে

0 1,002

তোজাম্মেল হোসেন মঞ্জু, ডোমার-নীলফামারী : নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার চিলাহাটি ডাকবাংলা মোড় থেকে উপজেলা চেয়ারম্যানের বাড়ী পর্যন্ত ১ কিঃমিঃ সড়কটি সংস্কারের ১৫ দিন যেতে না যেতেই ভাঙ্গতে শুরু করেছে।
সংস্কারে নিন্মমনের কাজ ও সড়কটির দু’ধারে মাটির পরিবর্তে বালু দিয়ে ধামাচাপা দেওয়া হয়েছে। ভেঙ্গে যাওয়া ওই সড়কে খাদ্যগুদম (এলএসডি) এর যানবাহন চলাচলের হুমর্কীর মুখে পরেছে।স্থানীয়রা জানান, সড়কটির সংস্কার কাজের শুরু থেকে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে তরিঘরি করে শেষ করা হয়েছে। তখন গর্ত ও নিচু জায়গা গুলিতে ইটের টুকরো ও পাথরের পরির্বতে মাটি দিয়ে নাম মাত্র রোলার করা হয়েছে। সড়কটির পিচ কার্পেটিং করার সময় নিন্মমনের পাথর দিয়ে ধামা চাপা দিয়ে কাজ শেষ করা হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সড়ক সংলগ্ন স্থানীয়রা জানান, ঠিকাদারের লোকজন শুরু থেকে নিন্মমনের কাজ করলেও প্রতিবাদ করেও কোন ফল হয়নি। সে সময় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষদের অবগত করা হয়েছে। স্থানীয়রা আরো জানান, আশপাশের কয়েকটি সড়কের কাজের চেয়ে ওই সড়কের কাজের মান খুবই নিন্মমনের করা হয়েছে। যা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সরেজমিনে যাচাই করলে সত্যতা বেড়িয়ে আসবে। এরই মধ্যে সড়কটি সংস্কারের ১৫ দিনের মাথায় ৫/৬ স্থানে ভাঙ্গতে শুরু করেছে। যে ভাবে সড়কটি ভাঙ্গাতে শুরু করেছে বর্ষা শুরুর আগেই ওই সড়ক দিয়ে চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে।
বিশেষ করে এলএসডি’র ধান, চাল সংগ্রহ ও প্রদানের হুমর্কীর মুখে পড়বে। ঠিকাদারের নিয়োজিত অলিয়ার রহমান জানান, রাস্তা ভাঙ্গলে আমরা কি করবো। আমাদের কাজ শেষ করা হয়েছে, এখন আপনারা লিখতে পারেন।
ডোমার উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী ওবায়দুর রহমান জানান,ঠিকাদার ঢাকায় বসে ফোনে ছাড়া তাকে পাওয়া যায় না। কাজ করার অফসন এখনো আছে। আমি লোক পাঠিয়ে ব্যপারটি খতিয়ে দেখব।

Leave A Reply

Your email address will not be published.