বাংলাদেশের সমস্ত অর্জনের সাথে জড়িয়ে আছে আওয়ামী লীগের নাম- তথ্যমন্ত্রী

0 126

নিজস্ব প্রতিবেদক: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ বলেছেন, বাংলাদেশের সমস্ত অর্জনের সাথে জড়িয়ে আছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নাম। বাংলাদশ আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার নেতৃত্ব প্রদানকারী ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল। আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে এ দেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। ‘তুমি কে? আমি কে? বাঙালি, বাঙালি’, ‘তোমার ভাষা আমার ভাষা; বাংলা ভাষা, বাংলা ভাষা’, ‘ তোমার আমার ঠিকানা, পদ্মা মেঘনা যমুনা’, ‘বীর বাঙালি অস্ত্র ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর’ স্লোগানের মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হাজার বছরের ঘুমন্ত বাঙালিকে উজ্জীবিত করে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা উপহার দিয়েছেন।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

তথ্যমন্ত্রী আজ নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলা চত্বর মাঠে উপজেলা শাখা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ১৯৪৮ সালে বঙ্গবন্ধু মাতৃভাষা বাংলার দাবিতে রাজপথে সম্মুখে থেকে আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেছিলেন। অন্য ভাষা সৈনিকদের সাথে কারাগারে থাকা অবস্থায় বঙ্গবন্ধু ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিকে ভাষা দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই পাকিস্তানের ১৯৫৬ সালের সংবিধানে বাংলা অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এখন ২১ ফেব্রুয়ারি পৃথিবীব্যাপী আন্তার্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃত। প্রতিবছর বিশে^র ২০০টি দেশ ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করে। ভাষা শহিদদের স্মরণে দেশে দেশে নির্মিত হচ্ছে শহিদ মিনার। আর সেখানে বাংলা ভাষায় বাজানো হচ্ছে- ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো ২১ শে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’। এই অর্জনও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্জিত হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে স্বাধীনতার ৫০তম বছরে বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন আর দরিদ্র দেশ নয়। আমরা সব সূচকে পাকিস্তানকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছি। পাকিস্তান এখন বাংলাদেশের সফলতা দেখে দীর্ঘশ্বাস ফেলে। তারা এখন বাংলাদেশের মত হতে চায়। মন্ত্রী বলেন, এটাই হচ্ছে জাতির পিতার স্বার্থকতা, শেখ হাসিনার স্বার্থকতা।


মন্ত্রী বলেন, বিশ্ব যখন করোনা মহামারীতে অবরুদ্ধ, বেসামাল তখন বলা হয়েছিল বাংলাদেশে লাখ লাখ মানুষ না খেয়ে মারা যাবে। কিন্তু শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের কারণে একজন মানুষও না খেয়ে মরে নাই।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় উপমহাদেশে বাংলাদেশের অবস্থান সবার উপরে এবং সারাবিশে^ ২০ নম্বরে।

মন্ত্রী বলেন, টিকা উৎপাদন শুরু হওয়ার আগেই প্রধানমন্ত্রী জনগণকে টিকা উপহার দেয়ার কথা ভেবেছেন। বিশ্বের অনেক দেশের চেয়ে বাংলাদেশের মানুষ আগেই টিকা পেয়েছে। এ পর্যন্ত ৩০ লাখ মানুষ টিকা গ্রহণ করেছে। এটা প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় নেতৃত্বের ফলেই সম্ভব হয়েছে।
এ সময় মন্ত্রী টিকা নিয়ে সমালোচনাকারীদের থেকে সতর্ক থাকার এবং সবাইকে টিকা নেয়ার আহবান জানান।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x