সাংসদ হারুনের কারামুক্তিতে আর কোনও বাধা নেই

0 15

আইন-আদালত ডেস্ক: শুল্কমুক্ত গাড়ি আমদানি ও বিক্রির অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড পাওয়া বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশিদকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

ফলে কেরাণীগঞ্জ কারাগারে থাকা এমপি হারুনের কারামুক্তিতে এখন আর আইনগত কোনও বাধা নেই।

বুধবার (৩০ অক্টোবর) হারুনের জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের করা আবেদনে ‘নো অর্ডার’ দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ।

এর আগে এক আবেদনের প্রেক্ষিতে গত সোমবার (২৮ অক্টোবর) বিচারপতি মো. শওকত হোসেনের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এমপি হারুনকে ৬ মাসের আগাম জামিন দেন। সেইসঙ্গে তাকে বিচারিক আদালতের করা ৫০ লাখ টাকা জরিমানাও স্থগিত করা হয়।

হাইকোর্টের ওই জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে গতকাল মঙ্গলবার আবেদন করে দুদক। আবেদনটি চেম্বার বিচারপতির আদালত হয়ে বুধবার আপিল বিভাগে নিয়মিত বেঞ্চে উঠলে প্রধান বিচারপতি ‘নো অর্ডার’ দেন।

এদিন দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। আর এমপি হারুনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সৈয়দ মিজানুর রহমান, মাহবুব উদ্দিন খোকন ও হারুনের স্ত্রী আইনজীবী সৈয়দা আসিফা আশরাফি পাপিয়া।

সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় শুল্কমুক্ত গাড়ি আমদানি করে বিক্রির অভিযোগে করা মামলায় গত ২১ অক্টোবর চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের এমপি হারুন অর রশিদকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম।

আদালত সূত্রে জানা যায়, শুল্কমুক্ত গাড়ি আমদানি করে বিক্রির অভিযোগে হারুন অর রশিদসহ তিনজনকে আসামি করে ২০০৭ সালের ১৭ মার্চ পুলিশের উপপরিদর্শক ইউনুস আলী বাদী হয়ে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে ওই বছরের ১৮ জুলাই হারুনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন দুদকের সহকারী পরিচালক মোনায়েম হোসেন। আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে ২০০৭ সালের ২০ আগস্ট সাংসদ হারুনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে বিচারকাজ শুরু করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.