0 ৪৬২

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় শালিস বৈঠককে কেন্দ্র করে ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের বোয়ালধার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। একই ঘটনায় গুরুতর আহত লুৎফর রহমান হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

 

বিচার প্রার্থী তৈয়ব আলী ছেলের মোহাম্মদ আলী জানান, জমিজমা নিয়ে বিরোধের কারণে আমরা ভানোর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব সরকারের নিকট বিচার প্রার্থনা করি। তিনি গত মঙ্গলবার শালিসের দিন ধার্য করেন। ওইদিন প্রতিপক্ষের লোকজন হাজীর না হওয়ায় আজ সকালে শালিস। বৈঠক শুরুর ১০মিনিটের মধ্যেই উত্তেজিত হয়ে লাঠি-সোটা নিয়ে মারধর শুরু হয় দুই পক্ষের মধ্যে। প্রতিপক্ষ সাইদুর রহমানের লোকজনের আঘাতে লুৎফর রহমান নামে একজন গুরুতর আহত হয়। দুপক্ষের মারধরের সময় চেয়ারম্যানের হাতেও আঘাত লেগেছে।

 

অপরপক্ষ হামিদুর রহমান জানান, একই পরিবারের অল্প জমি নিয়ে এ বিরোধ। কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় তৈয়ব আলীর লোকজন উত্তেজিত হয়ে মারধর শুরু করেছে।

 

ভানোর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব সরকার জানান, দুপক্ষই উত্তেজিত। শালিস শুরু হওয়ার সাথে সাথে লাঠি-সোটা, চেয়ার টেবিল তুলে মারধর শুরু করে।

 

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান জানান, এবিষয়ে থানায় কেউ অবগত করেনি।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.