অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক হাবিবুর রহমান স্মরণে রাবিতে আলোচনা ও দুআ অনুষ্ঠান

0 ১৭৯

রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রয়াত বিশিষ্ট ইসলামী অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক শাহ্ মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের স্মরণে আলোচনা সভা ও দুআ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে । রোববার (২০ আগস্ট) বিকাল ৪ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডীনস কমপ্লেক্স ভবনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় লেখক ফোরাম’। লেখক ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক মুহাম্মদ শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অধ্যাপক শাহ্ মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের প্রথম সন্তান এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মুর্শিদা ফেরদৌস বিনতে হাবিব বলেন, আমার বাবাকে অনেকে সমাজসেবক, দানশীল, লেখক, শিক্ষক, অর্থনীতিবিদ হিসেবে চিনেন কিন্তু আমি তাকে চিনি বাবা হিসেবে। তিনি একজন আদর্শ বাবা ছিলেন।

আমাদের উপর তিনি কেনোকিছু চাপিয়ে দিতেননা। তবে আমাদের ইসলামিক নীতি ও সৎভাবে চলতে বলতেন। আমাদের কাছে তিনি ছিলেন একজন চলন্ত বিশ্বকোষ। তার কাছে অ্যাকাডেমিকসহ সকল বিষয়ের সমাধান পাওয়া যেত। লেখক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. সেতাউর রহমানের উপস্থাপনায় প্রধান আলোচক হিসেবে মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মু. উমর আলী বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় তার অবদান অনেক। যা আজ চাপা পরে গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রান্তিলগ্নে তিনি বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছেন। আমার স্ত্রী ইন্তেকালের পর তিনি আমার সাথে অনেক ব্যক্তিগত যোগাযোগ করেছেন। যা আমার জন্য অনেক উপকার হয়েছে। বিশেষ অতিথি হিসেবে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক মু. রফিকুল ইসলাম বলেন, তিনি একজন খাঁটি মুসলমান ছিলেন। ইসলামকে সম্পূর্ণ মেনে চলার চেষ্টা করেছেন। তিনি তার সন্তানদের ইসলামী শিক্ষা দিয়েছেন এবং স্বাধীনতা দিয়েছেন। তিনি পড়াশুনা নিয়ে ব্যস্ত থাকতেন।

তিনি জ্ঞান বিতরণে সক্রিয় ছিলেন। তিনি মানুষ হিসেবে এমন এক সম্মানের জায়গায় স্থান করে নিয়েছেন যেখানে আমরা কেউ যেতে পারব না। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক দায়িত্ব পালন করেছেন কিন্তু কারো সাথে সাংঘর্ষিক কোন ব্যবহার করেননি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (চট্টগ্রাম) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম আজহারুল ইসলাম, তিনি আমার বন্ধু ছিলেন এবং ছাত্রবান্ধব শিক্ষক ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্রান্তীকাল মুহুর্তে তিনি শিক্ষার্থীদের পাশে ছিলেন।

তার মৃত্যুর কয়েকদিন আগে আমি তার সাথে অনেক কথা বলেছি। তার মৃত্যু থেকে আমরা শিক্ষা নেবো এবং সৎ পথকে জীবনের লক্ষ্য হিসেবে গড়ে তুলব। আলোচনা ও দুয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বেলাল হোসেন, জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক এফ নজরুল ইসলাম, জিয়া পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. এনামুল হক, কলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. ফজলুর হক, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহা. ফরিদ উদ্দিন খানসহ শতাধিক শিক্ষক-কর্মকর্তা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.