আলোচনা সমালোচনার পর অবশেষে প্রত্যাহার হলো নুসরাত ফারিয়ার বিতর্কিত গান

1,026

আলমগীর,বিনোদন :
আলোচনা সমালোচনার পর ইউটিউব থেকে প্রত্যাহার করে নেয়া হলো নুসরাত ফারিয়া অভিনীত বস টু ছবির গান আল্লাহ মেহেরবান। ছবিটিতে তার সহশিল্পী কলকাতার জিৎ। যৌথ প্রযোজনার এই ছবিটি বাংলাদেশ অংশে প্রযোজনা করেছে জাজ মাল্টি মিডিয়া ও পরিচালনা করেছেন আব্দুল আজিজ। মূলত জাজ মাল্টিমিডিয়াই ইউটিউব থেকে অবশেষে প্রত্যাহার করে নিয়েছে বিতর্কিত গান আল্লাহ মেহেরবান।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই সার্চ দিয়ে আর গানটিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বাংলাদেশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে।

আল্লাহর পবিত্র নামকে ব্যবহার করে কুরুচিপূর্ণভাবে অশ্লীল পোশাক পড়ে নেচেছে নুসরাত ফারিয়া। তাই জাজ মাল্টি মিডিয়াকে ‘আল্লাহ মেহেরবান’ শীর্ষক গানটি আগামী তিনদিনের মধ্যে ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলতে আইনি নোটিশ পাঠান সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

সময় মতো গানটি ইউটিউব থেকে মুছে ফেলতে হবে এবং চলচ্চিত্র প্রদর্শনী বন্ধ করতে হবে, না হলে জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রতিষ্ঠানের পরিচালকের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নোটিশ প্রেরণকারী আইনজীবী হুজ্জাতুল ইসলাম খান জানান, আল্লাহর নামে মদ ও স্বল্প পোশাকে নারীদেহ প্রদর্শনীতে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করা হয়েছে। এ গানের চিত্রায়ন ও দৃশ্যায়নের মাধ্যমে আপত্তিকর দৃশ্য দেখানো হয়েছে। যা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছে। তাই অতিদ্রুত ইউটিউব থেকে এই ভিডিও সম্বলিত গানটি রিমুভ করতে বলা হয়েছে।

গত ২৫ মে ফেসবুকে গানটি মুক্তির আগাম খবর জানিয়ে দিয়েছিল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। যেখানে গানের শিরোনামের সঙ্গে নুসরাত ফারিয়ার বেশ খোলামেলা ছবি পোস্ট করা হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরপর থেকে নানা প্রশ্ন আর সমালোচনা শুরু হয়।

‘আল্লাহ মেহেরবান, মওলা মেহেরবান’র মতো গানের কথা অথবা ভাবধারার সঙ্গে ফারিয়ার খোলামেলা উপস্থিতি দারুণ সাংঘর্ষিক বলে মনে করছেন অনেক সিনেমাপ্রেমী ও সমালোচকরা। এমনকি গানের কিছু অংশে পাঞ্জাবী, পাগড়ি ও টুপি-পরিয়ে জিৎকে ফারিয়ার নাচের সঙ্গে দর্শক হিসেবে উপস্থিত করা হয়েছে।

x