শহরে নয়নতারা

0 741

noyon-tara-3_122935আলমগীর,বিনোদন :
আর যে বন্ধু নয়নের তারা হয়ে থাকে তার নাম ‘নয়নতারা’ ছাড়া আর কি হতে পারে।বন্ধু মানে তো আয়না। যার সামনে দাঁড়িয়ে নিজের ভালো-মন্দ রূপটা দেখা যায়। একজন ভালো বন্ধু পাওয়া তো সাত জনমের সাধনা।

বন্ধুত্বের সম্পর্ক নিয়ে এমনই দর্শনে বিশ্বাসী দীপ্ত আর রিক্ত। এক ছাদের নিচে তারা আছে এক যুগেরও বেশি সময় ধরে। রিক্ত বিশ্বাস করে জীবনেও ছেলে আর মেয়ের মধ্যে বন্ধুত্ব হয় না। যা হয় তা প্রেম নয় তো কামের তাড়না। কিন্তু দীপ্ত এ কথা মানতে নারাজ। নয়নতারা নামে যে মেয়েটি তাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া সেই মেয়েটিকে নিয়ে বাজি ধরে দুই বন্ধু। রিক্ত বলে এই নয়নতারা মেয়েটির সঙ্গে সে প্রেম করবে, আর দীপ্ত মেয়েটির সঙ্গে বন্ধুত্ব করবে। তিন মাস পর দেখা যাব কার কি অবস্থান। এই নিয়েই বন্ধু দিবসের এ নাটকের গল্প এগিয়ে যাবে। গোলাম রাব্বানীর রচনায় নাটকটি নির্মাণ করেছেন জয়ন্ত রোজারিও।

নাটকটিতে নয়নতারা চরিত্রে অভিনয় করেছেন জুঁই, দীপ্ত চরিত্রে নাঈম এবং রিক্ত চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাশেদ মামুন অপু।

নাটকটির শুটিং হয়েছে ঢাকার উত্তরা এবং দিয়াবাড়িতে।

নাটকটি নিয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘আসলে বন্ধুত্বের সংজ্ঞাটা আসলে কি সেই গল্পটা বলতে চেয়েছি খুব ছোট করে। বন্ধু তো একটা সম্পর্কের নাম। সেই সম্পর্ক অন্য সব সামাজিক সম্পর্কের চেয়ে একেবারেই ভিন্ন। একটা রাজহাঁস, একটা নয়নতারা ফুলের গাছও যে কারো চরম বন্ধু হতে পারে। সেই গল্পটা আছে এখানে।’

নির্মাতা জয়ন্ত রোজারিও বলেন, ‘আমি চেষ্টা করেছি বন্ধু দিবসের জন্য আলাদা কিছু একটা করার। নাটকটি দেখে বন্ধুত্ব নিয়ে অনেকের দৃষ্টিভঙি পাল্টাতে পারে বলে মনে হচ্ছে।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.