৭ ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাবে ব্যায়াম

0 12

স্বাস্থ্য ডেস্ক: অবসর সময়ে নির্দিষ্ট সময়ে শরীরচর্চার মাধ্যমে সাত ধরনের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমানো সম্ভব। নতুন এক গবেষণার ভিত্তিতে এমন দাবি করেছেন গবেষকরা। সাড়ে সাত লাখ মানুষের অংশগ্রহণে নয়টি ‘ট্রায়াল’য়ের মাধ্যমে এই গবেষণাটি করা হয়। সাত ধরনের ক্যান্সারের মধ্যে কয়েক ধরনের ক্যান্সারের সঙ্গে শরীরচর্চা ‘ডোজ/রেসপন্স’-জাতীয় সম্পর্কও খুঁজে পান গবেষকরা।

এই গবেষণা করেছেন ‘আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি’র ‘হার্ভার্ড টি. এইচ. চ্যান স্কুল অফ পাবলিক হেল্থ অ্যান্ড ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিউট’য়ের গবেষকরা। ‘ক্লিনিকাল অনকোলজি’ শীর্ষক জার্নালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়।

অল্পা পাটেল, আমেরিকারন ক্যান্সার সোসাইটিয়ের ‘এপিডেমিওলজি’ বিভাগের জ্যেষ্ঠ পরিচালক বলেন, ‘শারীরিক পরিশ্রমের বিধিনিষেধ অনেকাংশেই হৃদরোগ, ডায়াবেটিস ইত্যাদি দীর্ষমেয়াদি রোগের ক্ষেত্রে এর প্রভাবের ওপর নির্ভরশীল।

এই বিধিনিষেধে বলা ছিল, সপ্তাহে প্রতিদিন আড়াই থেকে পাঁচ ঘণ্টা মৃদু থেকে ভরী শরীরচর্চা অথবা দেড় থেকে আড়াই ঘণ্টা ভারী শরীরচর্চাই স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের জন্য যথেষ্ট।

গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, প্রতি সপ্তাহে মোট সাড়ে সাত থেকে ১৫ ঘণ্টা শরীরচর্চা ১৫ ধরণের ক্যান্সারের মধ্যে ৭ ধরনের ক্যান্সারে ঝুঁকি কমায়। শরীরচর্চায় মাত্রা বাড়ালে উপকারের মাত্রাও বাড়ে।

পুরুষের ক্ষেত্রে সাড়ে সাত ঘণ্টা শরীরচর্চার মাধ্যমে অন্ত্রের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে ৮ শতাংশ, আর ১৫ ঘণ্টা শরীরচর্চায় ঝুঁকি কমেছে ১৫ শতাংশ। একইভাবে নারীদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমতে পারে ছয় থেকে ১০ শতাংশ, ‘এন্ডোমেট্রিয়াল ক্যান্সার ১০ থেকে ১৮ শতাংশ, বৃক্কে ক্যান্সার ১১ থেকে ১৭ শতাংশ, ‘মায়লোম’ ক্যান্সার ১৪ থেকে ১৯ শতাংশ, যকৃতের ক্যান্সার ১৮ থেকে ২৭ শতাংশ এবং ‘নন-হজকিনি লিম্ফোমা’র ঝুঁকি নারীদের ক্ষেত্রে কমে ১১ থেকে ১৮ শতাংশ।

পাটেল বলেন, ‘এই তথ্য থেকে বোঝা যায় শরীরচর্চার এই বিধিনিষেধ ক্যান্সারের ঝুঁকি কমানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’ রয়টার্স।

Leave A Reply

Your email address will not be published.